টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ফটিকছড়িতে ধানের শীষ পেয়েও মনোনয়ন দাখিল করেত পারেননি এক চেয়ারম্যান প্রার্থী: হুমকির অভিযোগ

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ২৮ মার্চ (সিটিজি টাইমস) :: ফটিকছড়ি উপজেলার জাফতনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দল থেকে ধানের শীষ প্রতীক পেয়েও মনোনয়ন দাখিল করতে পারেননি এক প্রার্থী। তিনি জাফতনগর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মো. নুর উদ্দিন। রবিবার ছিল মনোনয়ন ফরম দাখিলের শেষ দিন। কিন্তু তিনি নির্দিষ্ট সময় অতিবাহিত হলেও মনোনয়ন ফরম দাখিল করেননি।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘ আমি নির্বাচন করার জন্য সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। মনোনয়ন ফরমও গ্রহন করেছিলাম, দল থেকেও ধানের শীষ প্রতীকের একক প্রার্থী হিসেবে মনোনিত হলাম। এলাকাবাসী ও দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে একাধিক বৈঠকেও বসেছি। মনোনয়ন দাখিলের দিন ফরম দাখিল না করার জন্য আমার কাছে হুমকি আসতে থাকে। যারা হুমকি দিয়েছে, তাদের সকলে আমার পরিচিত। আমি তাদের কাছে অনুরোধ করেছি, অন্তত ফরম জমা দিতে দিন,পরে না হয় প্রত্যাহার করে নেব। কিন্তু তারা কোনভাবেই মানতে নারাজ ছিল। হুমকিদাতারা কারা জানতে চাইলে বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘ আমার জীবনের ঝুঁকি রয়েছে, আমি তাদের নাম বলতে পারব না। তবে আমি বিষয়টি দলীয় হাইকমান্ডকে জানিয়েছি।’

অপরদিকে, ফটিকছড়ির আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ১৫ ইউনিয়নে জাফতনগর ছাড়া বাকী ১৪ টি ইউনিয়নে বিএনপির একক প্রার্থী রয়েছে। তবে, সুন্দরপুর ইউনিয়নে ধানের শীষ প্রতীকের দুইজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তারা হলেন, আরশাদ হোসেন সেলিম ও বর্তমান চেয়ারম্যান শহিদুল আজম।

নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, উভয়ে দলের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। জানা যায়, পূর্বে আরশাদ হোসেন সেলিম চৌধুরীকে বিএনপির মনোনয়ন দিলেও তা বাতিল করে মনোনয়ন জমাদানের শেষ দিন বর্তমান চেয়ারম্যান শহিদুল আজমকে চুড়ান্ত মনোনয়ন দেয় বিএনপি।

উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়নে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- বাগান বাজারে খোরশেদুল আলম, দাঁতমারায় ইদ্রিছ মিয়া , নারায়নহাটে খোরশেদুল আলম বাবুল , ভূজপুরে নাজিম উদ্দিন , হারুয়ালছড়িতে এম. এ কাশেম, পাইন্দং এ সরোয়ার হোসেন , স্বপনকাঞ্চন নগরে বদিউল আলম, লেলাংয়ে- হোসাইন আহমদ মিয়াজী, রোসাংগিরীতে মো. সাইফুদ্দিন , বখতপুরে জাহাঙ্গীর আলম, ধর্মপুর মো. ইউছুপ, সমিতিরহাটে জাহেদ উল­াহ কুরাইশী, আব্দুল­াহপুরে আবুল কাশেম।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত