টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে ৭ ইউনিয়নে আ’লীগের একক প্রার্থী, বাকী ৭ ইউনিয়নে জটিলতা কাটেনি

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ২৪ মার্চ (সিটিজি টাইমস) ::  আগামী ৭ মে চট্টগ্রামের রাউজানের ১৪টি ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ৪র্থ ধাপের এই নির্বাচনে এ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামী লীগের দলীয় একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারণ করা হচ্ছে তৃণমুল নেতাদের ভোটে। আজ ২৪ মার্চ বৃহষ্পতিবার পর্যন্ত ৭ টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা করে তৃণমুল নেতাদের ভোট ও সর্মর্থন নিয়ে একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারন করা হয়েছে । গতকাল বৃহষ্পতিবার সর্বশেষ বর্ধিত সভায় নোয়াপাড়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম ও বাগোয়ানে বর্তমান চেয়ারম্যান ভুপেশ বড়–য়াকে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতিকের একক প্রার্থী ঘোষনা করা হয়।

নোয়াপাড়া ও বাগোয়ান আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক রাঙ্গুনীয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলী শাহ, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক সৈয়দ মোজাফ্ফর হোসেন, আহসান হাবিব চৌধুরী হাসান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সুনিল চক্রবর্তি, সাধারণ সম্পাদক আরিফুল আলমের উপস্থিতিতে এই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ভুপেশ বড়ুয়াকে একক প্রার্থী ঘোষনা করা হয়। একইদিন নোয়াপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রার্থী নির্ধারণে বর্ধিত সভা নোয়াপাড়া কলেজ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরীসহ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলমকে নৌকা প্রতিকে দলীয় একক প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন নেতৃবৃন্দ। এদিকে গত ২৩ মার্চ বুধবার ৭ টি ইউনিয়নের মধ্যে রাউজানের হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন তৃনমুল নেতাদের গোপন ব্যলেটে বর্তমান চেয়ারম্যান হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম, তার সাথে চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারন পদে প্রতিদ›িদ্বতা করেন হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহবুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মোমেন, সেলিম উদ্দিন, জিয়াউল হক সুমন।

২৩ মার্চ বুধবার বিকালে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যলয়ে হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অধ্যাপক মঈন উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার বাবুল, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য দিদারুল আলম বাবুল, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, সহ সভাপতি কামাল উদ্দিন আহাম্মদ, আনোয়ারুল ইসলাম সাংগঠনিক সম্পাদক রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর আলমগীর আলী,যুগ্ন সম্পাদক রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর বশির উদ্দিন খানের উপস্থিতিতে পাচঁ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ›িদ্বতা হয় । সভায় উপস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্যরা গোপন ব্যালেটের মাধ্যমে বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলামেকে নির্বাচিত করেন। বর্ধিত সভা চলাকালে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যলয়ের বাইরে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা জমায়েত হয়। একইদিন উপরোক্ত নেতাদের উপস্থিতিতে সন্ধ্যায় রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যলয়ে নোয়াজিশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই ইউনিয়ন সভায় নোয়াজিশ পুর ইউনিয়নে আওয়ামী আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারণ করার সময়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান সরোয়ার্দি সিকদার, সাধারন সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা জাকেরিয়া তিনজনই আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব করেন। পরে তিনজনের মধ্যে সমঝোাতা হয়ে সাধারন সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা জাকেরিয়া তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার কনে নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান সরোয়ার্দি সিকদারকে সর্মথন করেন । সভায় উপস্থিত জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা সহ সরোয়ার্দি সিকদারকে আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষনা দেন।

একইদিন বিকালে রাউজানের উরকিরচর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা উরকিরচর সোনরারগাওঁ কমিনিউটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয় সভায় উরকিরচর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে দক্ষিণ রাউজান ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুল জব্বার সোহেলের নাম প্রস্তাব করা হয় । আর কোন প্রার্থীর নাম প্রস্তাব না করায় ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেলকে উরকির চর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষনা করেন আওয়ামী লীগের নেতারা।

গত ২২ মার্চ মঙ্গলবার সকাল দশটার সময় রাউজানের কদলপুর হামিদিয়া মার্দ্রাসার হলে আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারনের জন্য কদলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় বর্তমান চেয়ারম্যান মুজাহিদ উদ্দিন লিংকনের নাম আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসাবে নাম প্রস্তাব করা হয় । এতে আর কোন চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম প্রস্তাব না করায় মুজহিদ উদ্দিন লিংকনকে কদলপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষনা করেন উপস্থিত আওয়ামী লীগের সকল নেতারা । একই দিন গত ২২ মার্চ মঙ্গলবার দুপুরে রাউজানের পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্ধারনে পশ্চিম গুজরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বধির্ত সভায চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হিসাবে বর্তমান চেয়ারম্যান সাহাবু উদ্দিন আরিফের নাম প্রস্তাব করা হয়। সভায় সাহাবু উদ্দিন আরিফ ছাড়া আর কোন প্রার্থীর নাম কেউ প্রস্তাব না করায় সাহাবুদ্দিন আরিফকে আওয়ামী লীগের একক চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষনা করেন উপস্থিত আওয়ামী লীগের নেতারা।

এদিকে ৭টি ইউনিয়নে প্রার্থী নির্ধারণ করা হলেও অবশিষ্ট ৭ টি ইউনিয়নের মধ্যে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কমিটির তালিকা নাম বদল নিয়ে চলছে জটিলতা। উপজেলার ডাবুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুর রহমান চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, আমার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আলমগীর সম্মেলনের মাধ্যমে যে কমিটি করা হয়েছিল ওই কমিটির সদস্যদের নাম পরিবর্তন করে এলাকার র্শীষ সন্ত্রাসী আজিজুল হকের সহযোগী গুডসহিল থেকে ছাত্রদলনেতা নিটোল হত্যার পর সালাহ উদ্দিন কাদের চৌধুরীসহ কোতয়ালী থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া সন্ত্রাসী ফজলুল আজিজ বাচ্চু ও ডাবুয়া ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি কামাল উদ্দিন প্রকাশ র্স্বণ কামাল, আলমগীরের আত্মীয় নুরুল কবিরকে কমিটিতে নাম দিয়েছে।

উপজেলার চিকদাইর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তোষ চৌধুরী অভিযোগ করেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বর্তমান কাজী দিদারুল আলম কমিটির তালিকায় সদস্যদের নাম পরিবর্তন করে তার পক্ষের লোকজনের নাম অন্তর্ভুক্ত করে আসল সদস্যদের আড়াল করে। একইভাবে পাহাড়তলী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী কমিটির সদস্যদের নাম পরিবর্তন করে কমিটির তালিকায় মনগড়া তার পক্ষের লোকজনের নাম দিয়ে জালিয়তি কমিটির তালিকা তৈরী করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। পূর্ব গুজরা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক চন্দন দে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের তালিকায় আসল সদস্যদের নাম পরিবর্তন করে তার পক্ষের কিছু লোকজনের নাম অর্ন্তভুক্ত করে জাল কমিটি সৃজন করে বলে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস উদ্দিন আহমেদ অভিযোগ করেন। এই ইউনিয়নে সদস্য শেখ মুজিবুর রহমান অভিযোগ করেন, তিনি আওয়ামীলীগের কমিটির সদস্য ছিলেন কিন্তু তার নাম পরিবর্তন করে বিএনপির নেতা আধারমানিক রওশন তালুকদারের বাড়ীর বাসিন্দা নুরুল আজিমকে এ কমিটিতে অর্ন্তভুক্ত করেন। কমিটির জটিলতা নিয়ে বিরোধ নিরসনে উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন খান তার পছন্দের প্রার্থীদের মনোনয়ন পাইয়ে দিতে এসব জাল জালিয়তির আশ্রয় নেয়। এদিকে মোসলিম উদ্দিন খান বলেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্মেলন হওয়ার পর যে তালিকা আমাকে দেওয়া হয়েছে ওই তালিকা অনুসারে তৃণমুলের সদস্যদের মতামত ও ভোট নিয়ে প্রার্থী নিধার্রন করা হচ্ছে।

মতামত