টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

খালেদা-তারেকের পুনঃনির্বাচন কাউন্সিলে অনুমোদন

চট্টগ্রাম, ১৯ মার্চ (সিটিজি টাইমস) :: টানা চতুর্থবারের মতো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপি চেয়ারপারসন নির্বাচিত হলেন খালেদা জিয়া। একইসঙ্গে তার বড় ছেলে তারেক রহমানও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফের দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

আজ শনিবার বিকালে দলের ৬ষ্ঠ কাউন্সিলের দ্বিতীয় অধিবেশনে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। আগামী কাউন্সিলের আগ পর্যন্ত তারা এই পদে থাকবেন।

নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্বপালনকারী ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার উপস্থিত কাউন্সিলরদের সামনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তাদের নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি উপস্থাপন করে কণ্ঠভোটে তা পাস করিয়ে নেন।

এর আগে গত ৬ মার্চ জমির উদ্দিন সরকার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে জন্য যথাক্রমে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান একক বৈধ প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচন কমিশন খালেদা জিয়াকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির চেয়ারম্যান পদে এবং তারেক রহমানকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান পদে আগামী তিন বছরের জন্য নির্বাচিত ঘোষণা করছে।

নির্বাচনের এই ফলাফল চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে তোলা হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ১৯৮১ সালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানতে হত্যার পর রাজনীতিতে নামেন খালেদা জিয়া। এরপর সেনাপ্রধান এইচ এম এরশাদ ১৯৮২ সালে বিএনপি হটিয়ে ক্ষমতা দখল করলে সাত্তারের অসুস্থতার মধ্যে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের পদ নিয়ে দলের হাল ধরেন। ১৯৮৪ সালে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিএনপির চেয়ারপারসন নির্বাচিত হন খালেদা। সেই থেকে তিনি এই পদে রয়েছেন। ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে দলের পঞ্চম কাউন্সিলে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তারেক রহমান। এবারের কাউন্সিলে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত