টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গভর্নর এতো স্পর্ধা কোথায় পেলেন, প্রশ্ন অর্থমন্ত্রীর

ট্টগ্রাম, ১৪ মার্চ (সিটিজি টাইমস) :: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে টাকা চুরির ঘটনায় গভর্নর ড. আতিউর রহমানের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সোমবার মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠককালে আতিউরের বিরুদ্ধে কথা বলার সময় মন্ত্রী প্রচণ্ড উত্তেজিত হয়ে পড়েন বলে সূত্র জানায়।

অর্থমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, তিনি এতোটা স্পর্ধা পেলেন কোথা থেকে। এতবড় একটি ঘটনা ঘটে গেল তবুও তিনি আমাদেরকে জানানোর প্রয়োজন বোধ করলেন না। এ ব্যাপারে অবশ্যই একটি বিহিত হতে হবে।

সূত্র জানায়, অর্থমন্ত্রী যখন উত্তেজিত হয়ে ওঠেন তখন মন্ত্রিসভার অন্যান্য সদস্যরা প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর দিকে এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেন।

গভর্নর ড. আতিউর রহমান সম্পর্কে যখন অর্থমন্ত্রী নালিশ করছিলেন তখন তিনি এতটাই উত্তেজিত ছিলেন যে, তিনি স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারছিলেন না। এ সময় পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, মুহিত ভাই, আপনার পাঞ্জাবিটা অনেক সুন্দর।

তার কথার সুর ধরে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এবং তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুও পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেন।

তবে মুহিত যখন উত্তেজিত গভর্নর সম্পর্কে নালিশ করছিলেন তখন একদম চুপ ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ব্যাপারে তিনি কোনো কথা বলেননি। এজেন্ডায় নতুন বিষয় চলে আসায় এ বিষয়টি আর সামনে এগোয়নি।

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনায় সরকার ক্ষুব্ধ। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান এখন বিদেশ সফরে রয়েছেন। আমি তার দেশে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছি। তিনি দেশে ফিরলেই আমি তার সঙ্গে কথা বলবো এবং এরপরই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজ বিকাল চারটায় ভারত থেকে গভর্নরের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

গতকাল রবিবার অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের আচরণকে ধৃষ্টতাপূর্ণ আখ্যায়িত করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের লুকোচুরিরও তীব্র সমালোচনা করেন মুহিত।

এরপর গতকাল সন্ধ্যায় অর্থমন্ত্রী গণভবনে ছুটে যান এবং সেখানে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে বিস্তারিত অবহিত করেন। রাতে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের সভায়ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কেলেঙ্কারি নিয়ে কথা হয়। সেখানে প্রধানমন্ত্রী গভর্নরের আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বলে জানা যায়।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত