টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বাবার ফিরে আসার প্রতীক্ষার প্রহর যে শেষ হয়না অনন-আবি‘র

ফটিকছড়ির সিরাজ চেয়ারম্যানের নিখোঁজের চার বছর

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

fatickchari-(nikkoj-seraj)-চট্টগ্রাম, ০৩ মার্চ (সিটিজি টাইমস) : ‘আব্বু ছিলেন একটার্মের ইউপি চেয়ারম্যান; বিএনপি করতেন, তবে তেমন কোন বড় নেতাও ছিলেন না। আমার জানামতে, আব্বুর তেমন কোন বড় শত্রু কিংবা পাওনাদারও ছিলেন না, যার কারণে আব্বু গুম হতে পারেন। একটি পরিবারের কর্তার চার বছর ধরে নিখোঁজ হলে পরিবারটি কি করে চলে ? আম্মু কোথায় যাবেন আমাদেরকে নিয়ে ? কি করে শেষ করবো পড়ালেখা ? তার উপর চাচ্চুদের অন্যায়, অবিচারের স্বীকার হচ্ছি প্রতিনিয়ত। চাচ্চুরা গ্রামের বাড়ির সব সম্পত্তি ভোগ করে খাচ্ছে। আমাদের কোন খোঁজ নেন না। ’

এভাবে নিজের মনের ভেতর জমা থাকা দু:খ আর ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ফটিকছড়ি উপজেলার লেলাং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সদস্য বিগত চার বছর যাবৎ নিখোঁজ হওয়া এস এম শহীদুল আলম ওরফে সিরাজ চেয়ারম্যানের পুত্র আনোয়ারুল আজিম অনন (১৫)। সে নগরীর আগ্রাবাদ পাঠানটুলি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। তার রয়েছে ছোট এক ভাই আবি (১০)। সে ও তৃতীয় শ্রেনিতে অধ্যয়নরত। বাবা ফিরে আসবেন, সেই প্রতীক্ষায় কাটে তাদের প্রতিটি প্রহর। কিন্তু সেই প্রতীক্ষার প্রহর যে শেষ হয় না।

সিরাজ চেয়ারম্যানের নিখোঁজের চার বছর পূর্ণ হবে ৬ মার্চ। ২০১২ সালের ১ লা মার্চ সকাল সাড়ে ১২টায় তাঁর চট্টগ্রাম নগরীর বাসা থেকে বিএনপির ১২ মার্চের ‘‘চলো চলো ঢাকা চলো’’ সমাবেশ যোগ দিতে ঢাকার উদ্দ্যেশ্যে বাসা থেকে বের হন। ৬ মার্চ রাত ১১ টা পর্যন্ত তিনি ঢাকা থেকে মুঠোফোনে তার স্ত্রীর সাথে সর্বশেষ যোগাযোগ করেন। এরপর থেকে তার মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে।’

এ ঘটনায় স্ত্রী সোলতানা পারভীন চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী ও পাঁচলাইশ মডেল থানায় পৃথক দু‘টি নিখোঁজ সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন। তবে, পুলিশ চার বছরের মধ্যে তাঁর কোন ধরণের হদিস পায়নি।

সিরাজ চেয়ারম্যানের স্ত্রী সোলতানা পারভীন বলেন,‘ বাবাহীন দুই সন্তানকে নিয়ে নগরীতে ভাড়া বাসায় আছি। আমার স্বামীর বিষয়টি নিয়ে টেনশন করতে করতে দেড় মাস পূর্বে আমার বাবাও মারা যান। আমার ভাইয়ের দেওয়া খরচে, আর ধার-দেনা করে জীবন চলে।

ভাই কতদিন এভাবে আমাদের খরচ বহন করবে ? তারও সংসার রয়েছে । শশুরবাড়ির পক্ষ থেকে কোন সহযোগিতা পাইনা। আমার দুই সন্তানের ভবিষ্যত নিয়ে বড় সংশয়ে আছি। ’

নিখোঁজ সিরাজের ছোট ভাই মহিউদ্দিন তাদের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,‘ আমরাও আমার ভাইয়ের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি নিয়ে খুবই চিন্তিত। আমরা চেয়েছিলাম, আমার ভাবী, ভাতিজারা গ্রামে আমাদের সাথে থেকে বড় হোক। কিন্তু তারা কোনভাবেই শহর ছাড়েন না । এ নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে ভাবীর সাথে। তারা যদি তাদের ন্যায্য পাপ্যগুলো নিয়ে যেতে চায়, আমরা অবশ্যই দিতে প্রস্তুত।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত