টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

টেকনাফে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর অফিস থেকে সোয়া ৫ কোটি টাকার ইয়াবা চুরি

আমান উল্লাহ আমান
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

TEKNAF-PIC-29.02.2016-(T)চট্টগ্রাম, ২৯ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :  টেকনাফ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অফিস হতে সোয়া ৫ কোটি টাকার ইয়াবা চুরির ঘটনা ঘটেছে। চুরি হওয়া ইয়াবার পরিমান ১ লাখ ৮১ হাজার ৯১৩ পিস।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতের কোন এক সময় টেকনাফ উপজেলা কমপ্লেক্স এলাকায় অবস্থিত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসে এ দূধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে বলে জানান টেকনাফ অফিস ইনচার্জ তপন কান্তি শর্মা।

তিনি জানান, মামলার স্বাক্ষ্য দেয়ার জন্য তিনি নিজে রাঙ্গামাটি এবং অফিসের দায়িত্বরত ২ জন সিপাহী কক্সবাজারে অবস্থান করছিলেন। এসুযোগে সংঘবদ্ধ চোরের দল প্রশাসনিক এলাকায় দূধর্ষ এ চুরি সংঘটিত করে। তিনি আরো জানান, সোমবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে একই ভবনে অবস্থিত মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল আবছারের মাধ্যমে চুরির খবর পেয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান।

খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে কক্সবাজার অফিসের উপপরিচালক সুবোধ কুমার বিশ্বাস টেকনাফে পৌঁছেন। টেকনাফ অফিসে এসে তিনি ইয়াবা চুরি হওয়ার বিষয়টি অবগত হন। পরে তিনি বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সকলকে অবহিত করেন।

খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শফিউল আলম, থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল মজিদসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও বিজিবি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সংঘবদ্ধ চোরের দল প্রথমে অফিসের দরজার তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে পরে ইয়াবা রক্ষিত স্টীলের আলমারিটি ভেঙ্গে ইয়াবা ১ লাখ ৮১ হাজার ৯১৩ পিস ইয়াবা ও ২ কেজি গাঁজা চুরি করে। এসময় আলমারিতে গত এক বছর যাবৎ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর ও অন্যান্য আইনশৃংখলা বাহিনী কর্তৃক জব্দকৃত প্রায় ২ লাখ ইয়াবা রক্ষিত ছিল।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চুরির এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছিল।

ধারনা করা হচ্ছে, চোরের দল দীর্ঘ দিন ধরে পর্যবেক্ষন ও পরিকল্পনা করে দূধর্ষ এ চুরি সংঘঠিত করেছে।

টেকনাফ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ আবদুল মজিদ জানান, তিনি বিষয়টি অবগত হয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এদিকে উপজেলা কমপ্লেক্স এলাকার মতো প্রশাসনিক এলাকায় দূধর্ষ এ চুরির ঘটনাকে অনেকে রহস্যজনক বলে মনে করছেন।

এছাড়া খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সপ্তাহ খানেক পূর্বে এ অফিসের কর্মরত ২ জন সহকারী উপ পরিদর্শক ও ২ জন সিপাহীসহ ৪ জনকে একযোগে অন্যত্র বদলী করা হয়।

ঘটনার দিন গুরুত্বপূর্ণ এ অফিসে কোন কর্মকর্তা কর্মচারী উপস্থিত ছিলেননা।

মতামত