টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

এটিএম জালিয়াতিতে এক বিদেশি নাগরিক গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম, ২২ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : এটিএম বুথে জালিয়াতির ঘটনায় সিসি ক্যামেরায় পাওয়া ছবি দেখে এক বিদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার।

সোমবার সকালে ওই বিদেশিসহ বাংলাদেশি কয়েকজনকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার।

ঢাকার বনানীতে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবি) একটি বুথে স্কিমিং ডিভাইস বসানোর সময় ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরায় এক বিদেশির ছবি পাওয়া গিয়েছিল বলে ব্যাংকটির করা মামলায় বলা হয়েছিল।

এরপর ভিডিওতে দেখা ব্যক্তির মতো চেহারার পাঁচ বিদেশির উপর নজর রাখছিল পুলিশ। অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছিলেন, আসল অপরাধীর বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই গ্রেপ্তার করা হবে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ইউসিবি কর্তৃপক্ষ বনানী থানায় মামলা করে এজাহারের সঙ্গে সিসিটিভির ভিডিও জমা দেয়। ওই বিদেশি যাতে বাংলাদেশ থেকে পালাতে না পারে, সেজন্য বিমান, নৌ ও স্থলবন্দরগুলোতে নজরদারি চালাতে অনুরোধ করা হয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে।

এটিএম বুথে স্কিমিং ডিভাইস বসিয়ে ওই তথ্য ব্যবহার করে ‘ক্লোন’ এটিএম কার্ড তৈরির মাধ্যমে গ্রাহকের অজান্তে জালিয়াত চক্র লাখ লাখ টাতা হাতিয়ে নেয়।

ঠিক একইভাবে ইউসিবি, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড ও সিটি ব্যাংকের ছয়টি বুথে ‘স্কিমিং ডিভাইস’ বসিয়ে তথ্য চুরির প্রমাণ পেয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

ওই যন্ত্র বসানো অবস্থায় বুথগুলোতে ১২০০ কার্ডের লেনদেন হয়েছে। আর এ পর্যন্ত ৪০টি কার্ড ক্লোন করে গ্রাহকের প্রায় ২০ লাখ টাকা তুলে নেওয়ার তথ্য গোয়েন্দারা পেয়েছেন বলে তথ্য এসেছে গণমাধ্যমে।

এটিএম কার্ড জালিয়াতির ঘটনায় সিটি ব্যাংক কর্তৃপক্ষও পল্লবী থানায় একটি মামলা করেছে। গোয়েন্দা পুলিশ পুরো বিষয়টির তদন্ত করছে।

এর আগে, ১৮ ফেব্রুয়ারি রাতে এক বিদেশিকে আটক করা হয়। পরিচয় জানানো না হলেও তিনি পূর্ব ইউরোপের একটি দেশের নাগরিক বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সর্দার জানিয়েছেন, এটিএম কার্ড জালিয়াতির ঘটনার তদন্তের অগ্রগতির বিষয়ে দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত