টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাঙ্গুনিয়ায় মসজিদভিত্তিক গনশিক্ষা কার্যক্রম, না পড়িয়ে বেতন ভাতা তুলছেন অনেকেই

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৮ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :  ইসলামিক ফাউন্ডেশন পরিচালিত মসজিদভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা কার্যক্রম রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ৮৭টি প্রাক-প্রাথমিক ও ৪৬ টি কুরআন শিক্ষা কেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে ঢিমেতালে। অধিকাংশের কেন্দ্রের শিক্ষকরা পাঠদান দূরের কথা কেন্দ্রেই থাকেননা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শিক্ষার্থীদের না পড়িয়ে বেতন তুলছেন অনেকেই। বেশির ভাগই এ কেন্দ্রের শিক্ষকরা ব্যবসা বানিজ্য কিংবা অন্য কাজে ব্যস্ত থাকেন।

আরো অভিযোগ আছে কেন্দ্রের শিক্ষকরা বেশির ভাগই মক্তবের সময় সকাল ৬ টা থেকে ৯ টা পর্যন্ত ব্যক্তিগত কাজে থাকেন। প্রাক্-প্রাথমিক শিক্ষা ক্যাটাগরিতে যেসব এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় নাই সেসব স্থানে মসজিদভিত্তিক প্রাক-প্রাথমিক কার্যক্রম হওয়া দরকার। কিন্তু এর উল্টোটা হচ্ছে এখানে। রাঙ্গুনিয়ার অধিকাংশ স্থানে মসজিদভিত্তিক গনশিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকায় শিশুরা ৯ টা থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ায় মসজিদভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমে কোনো শিশু শিক্ষা গ্রহন না করলেও এর সাথে সংশ্লিষ্টরা মোটা অংকের বেতন প্রতি মাসে তুলে নিজেদের অবস্থা পরিবর্তনে ব্যস্ত রয়েছেন। ফলে মসজিদভিত্তিক গনশিক্ষা কার্যক্রম থেকে অবহেলিত এলাকার শিশুরা শিশু ও গনশিক্ষা কার্যক্রম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

পৌর এলাকার একটি কেন্দ্রে দীর্ঘদিন যাবত সহজ কুরআন শিক্ষার শিক্ষক হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন জনৈক মসজিদের ইমাম। অজ্ঞাত কারনে উনার কেন্দ্রটি বাতিল হয়ে যায়। শিক্ষার্থীদের আরবী শিক্ষার কথা বিবেচনা করে তিনি এখনো এলাকার শিক্ষার্থীদের আরবী ও কুরআন শিক্ষা পাঠদান করছেন। অভিযোগ আছে, উনার পরিবর্তে অফিসের কর্মকতা-কর্মচারীর যোগসাজসে ঐ কেন্দ্রে অন্য একজনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ এলাকায় ৩০০ গজের মধ্যে ৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় থাকলেও ঐ ব্যাক্তিকে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা ক্যাটাগরিতে নিয়োগ দেয়া হলেও সে ধরনের শিক্ষা কার্যক্রম অধিকাংশ কেন্দ্রে শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রম না করে অন্য পেশায় নিয়োজিত থাকেন। ফলে মসজিদভিত্তিক গনশিক্ষা কার্যক্রম নামে থাকলেও বাস্তবে কিছুই হয়না বলে এলাকাবাসীরা অভিযোগ করেছেন।

নাম প্রকাশে অনৈচ্ছুক মসজিদের এক ইমাম জানান, মসজিদ ভিত্তিক গনশিক্ষায় শিক্ষার্থীদের না পড়িয়ে বেতন ভাতা তুলছেন। এছাড়া মসজিদ লাগোয়া ফোরকানিয়া মাদরাসায় কিছু কিছু কেন্দ্র কুরআন শিক্ষা থাকলে ও প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা কোনো কেন্দ্রেই সক্রিয় নেই। এ বিষয়ে দেখারও কেউ নেই।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন মসজিদভিত্তিক শিশু ও গনশিক্ষা রাঙ্গুনিয়া উপজেলা ফিল্ড সুপারভাইজার মো. খোরশেদ সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে জানান, মাঠ পর্যায়ে গিয়ে দেখা গেছে সব কেন্দ্রই ভালভাবে চলছে। প্রাক প্রাথমিকে বাংলা ইংরেজী পড়ানো হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কমকর্তা মহোদয় এ বিষয়ে তদারকি করছেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত