টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বিয়ের দেড় মাস পর রাঙ্গুনিয়ায় বর নিখোঁজ

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

Ranguniaচট্টগ্রাম, ১৫ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : রাঙ্গুনিয়ার চন্দ্রঘোনা কদমতলী গ্রামে বিয়ের দেড় মাস পর মোহাম্মদদ আব্দুর রহিম (২৩) নামের এক বর নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজের ৭ মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশ কুল কিনারা উদঘাটন করতে পারেনি বলে জানা গেছে। ছেলেকে খুজে না পেয়ে পিতা-মাতা ও তার পরিবার নির্বাক হয়ে পড়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রাঙ্গুনিয়া উপজেলার চন্দ্রঘোনা কদমতলী গ্রামের পিতা মোহাম্মদ ইদ্রিছের সাথে তার ছেলে মোহাম্মদ আব্দুর রহিমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে প্রায়ই সময় ঝগড়া-বিবাদ লেগে থাকত। অবাধ্য চলাফেরা ও বিভিন্ন অসামাজিক কাজে জড়িয়ে পড়ায় মো. ইদ্রিছ তার ছেলেকে ২০১৩ সালে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। অভিমানী পুত্র মো. আব্দুর রহিম হাটহাজারী থানার সওদাগর পাড়া এলাকায় ভাড়া বাসা নিয়ে বসবাস শুরু করে। একই এলাকার জনৈক জাকির হোসেনের কণ্যা কোহিনুর আক্তারের সাথে পরিচয়ের সূত্র ধরে ২০১৫ সালের জুলাই মাসে বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েকদিন পর শ্বশুর বাড়ির লোকজন নিয়ে চন্দ্রঘোনায় আসেন আব্দুর রহিম। একমাস পর আব্দুর রহিম নতুন বউকে নিয়ে হাটহাজারী থেকে রাঙ্গুনিয়া চন্দ্রঘোনা কদমতলী গ্রামে আসে। পিতার বাড়িতে ১৫ দিন থাকার পর হাটহাজারীর ভাড়া বাসায় ফিরে যায় তারা।

বরের পিতা মো. ইদ্রিছ বলেন, আমার অজান্তে ছেলের বিয়ে করে, বিয়ের এক মাস পর নতুন বউ নিয়ে চন্দ্রঘোনা গ্রামের বাড়িতে আসে এবং তাদের গ্রহন করি। ১৫ দিন বাড়িতে থাকার পর পুনরায় হাটহাজারী উপজেলায় ফিরে যায়। যাওয়ার পর থেকে আমার ছেলে নিখোঁজ এবং মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

মতামত