টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘অতিথি’ পাখির আগমনে মুখরিত মিরসরাইয়ের মহামায়া

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

Mirsarai-Pakhi-Pictureচট্টগ্রাম, ০৭ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :: শীতকালে এলেই শুরু হয় পরিযায়ী তথা ‘অতিথি’ পাখিদের আগমন। এই সময়টাতে মেরু অঞ্চল, ইউরোপ, সাইবেরিয়া, এশিয়ার কিছু অঞ্চল এবং হিমালয়ের আশপাশের এলাকায় অতিরিক্ত বরফ পড়ার কারণে তুলনামূলক কম শীতের এই বাংলাদেশে খাদ্য ও নিরাপদ আশ্রয়ের আশায় চলে আসে অতিথি পাখিরা। এসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন হাওড়-বাওড়, খাল-বিল ভরে উঠে পাখিদের আনাগোনা ও কলকাকলীতে। আবার এরা দেশের সবস্থানে যায়না। সেসব স্থানে পাখিদের খাদ্যের প্রাচুর্য্য বেশি ও বিশালাকার জলাশয়ের এলাকাতেই এরা ছুটে যায়। আর এরই সুবাদে পরিযায়ী পাখিদের আগমনে মুখরিত হয়ে উঠেছে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম লেক মিরসরাইয়ের ‘মহামায়া’। শীতের শুরুর দিকটাতে পাখিদের আনাগোনা কম থাকলেও বর্তমানে বেড়েছে পাখিদের সংখ্যা। অতিথি পাখিদের আগমনে মহামায়ার রূপ-বৈচিত্রে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। আর সেই পাখিদের সাথে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে সৌন্দর্য্য পিপাসুরা ছুটে আসছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। এখানে আসা পাখিগুলোর মধ্যে বালি হাঁস, লেঞ্জা, সরালী, চখাচখী, ছোট সারস পাখি, ডুবুরি পাখি, নিশাচর পাখি ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

সীতাকুন্ড থেকে মহামায়ায় পাখিদের সৌন্দর্য্য দেখতে আসা পর্যটক শামসুদ্দীন জানান, শীতকালে মহামায়াতে এর আগে কখনো আসা হয়নি। অতিথি পাখিদের সাথে শীতের মহামায়াকে সত্যিই সুশোভিত লাগছে।

শিশু পর্যটক সাদিয়া আফরিন তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে জানায়, স্কুলের ছুটির মধ্যে মহামায়াতে ঘুরতে এসে তার খুব ভালো লাগছে। লেকের পাখিদের কলকাকলী মুগ্ধ করেছে তাকেও।

মহামায়া প্রকল্প ইজারাপ্রাপ্ত মেসার্স আহসান ট্রেডিং স্বত্বাধিকারী এস এম আবু সুফিয়ান বিপ্লব জানান, শীতে আসা অতিথি পাখিদের অবাধ বিচরণ ও তাদের রক্ষার জন্য সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সাথে পাখি শিকারীদের দেখলে সাথে সাথে জানানোর জন্যও সাধারণ মানুষদের অনুরোধ করা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত