টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাঙ্গুনিয়ার পৌরসভার কাউন্সিলর অপহৃত : কৌশলে মুক্তি, আটক ৩

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ০৫ ফেব্রুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :: চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড (মুরাদ নগর) এর নবনির্বাচিত কাউন্সিলর মো. তারেকুল ইসলাম চৌধুরীকে অপহরন করেছে সংঘবদ্ধ চক্র। কৌশলে অপহরন চক্রের গাড়ী থেকে লাফ দিয়ে মুক্তি পায় সে। পরে এ ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। তবে চক্রের মূল হোতারা পলাতক রয়েছে। পূর্ব শত্র“তার জের ধরে তাকে অপহরন হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে রামু থানায় শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) অপহৃত পৌর কাউন্সিলর মো. তারেক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার(৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে চট্টগ্রাম নগরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে যান তারেক। অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে রাত ৯ টায় বহদ্দার হাট থেকে অপহরনকারীরা কৌশলে ডেকে নিয়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে সিএনজি চালিত অটো রিক্সায় অজ্ঞান করে কক্সবাজারে নিয়ে যায়। রাতেই কক্সবাজার থেকে মায়ানমার নিয়ে যাওয়ার জন্য টেকনাফের দূর্গম এলাকায় অবস্থান করে তারা। টেকনাফ থেকে যাওয়ার পথে পথিমধ্যে তার জ্ঞান ফিরলে রাস্তায় টহল পুলিশ দেখে গাড়ী থেকে লাফ দেয় তারেক। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মোটরসাইকেল ও অন্য একটি গাড়ি থেকে অপহরণকারী চক্রের ৬ সদস্যের মধ্যে মো. মামুন (২৬), আবুল কালাম আজাদ(৩৭) তানজিনা আক্তার (২৫)সহ ৩ জনকে আটক করে। ঘটনাস্থল থেকে এ চক্রের সদস্য মো. রুবেল(২৯) তোফায়েল আহম্মদ (৩৬) ও মোহাম্মদ কায়সার (২৮)সহ ৩ জন পালিয়ে যায় বলে গ্রেফতারকৃতরা স্বীকার করে।

অপহৃত পৌর কাউন্সিলর মো. তারেক মুঠোফোনে জানায়, তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মী করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপনের কথা বলে তার পরিবারের কাছে ফোন করে। মুঠোফোনে কক্সবাজার এলাকার রামু এসে মুক্তিপনের টাকা দিতে বলে অপহরনকারীরা। পূর্ব শত্র“তার জের ধরে ঘটনার মূল হোতা রাঙ্গুনিয়ার জনৈক মো. রুবেল অপহরনের পরিকল্পনা করে বলে জানান অপহৃত তারেক।

রামু থানার ওসি মো. কায় কিস্লু ঘটনা সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটককৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। চক্রের বাকী সদস্যদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে রামু থানায় একাধিক ডাকাতি ও অপহরণ মামলা রয়েছে।

মতামত