টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

এসএসসি পরীক্ষায় কিছু পরিবর্তন

চট্টগ্রাম, ৩০  জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস)  সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদএসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই শুরু হচ্ছে। শনিবার সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ একথা জানিয়েছেন। তবে এবার কিছু পরিবর্তন থাকছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আগে শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল বা রচনামূলক অংশের উত্তর পরীক্ষার শুরুতে দিতে হতো। এবার শুরুতে দিতে হবে এমসিকিউ অংশের উত্তর। এই দুই অংশের মধ্যে বিরতি থাকবে ১০ মিনিট।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে শেষ হবে ৮ মার্চ এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ৯ মার্চ শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ মার্চ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নির্দিষ্ট তারিখে পাবলিক পরীক্ষা শুরু ও ফলাফল প্রকাশের যে ধারা আমরা শুরু করেছি তা একবারও ব্যত্যয় হয়নি।’

শিক্ষামন্ত্রী এসএসসি, দাখিল, এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষা সম্পূর্ণ নকলমুক্ত ও সুশৃঙ্খল পরিবেশে সফলভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন। এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ১৬ লাখ ৫১ হাজার ৫২৩ জন পরীক্ষার্থী। গতবারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে ১ লাখ ৭২ হাজার ২৫৭ জন। প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ৩১১টি। আর কেন্দ্র বেড়েছে ২৭টি।

এ বছর বিদেশে কেন্দ্র থাকবে আটটি। এর মধ্যে রয়েছে জেদ্দা, রিয়াদ, ত্রিপলী, দোহা, আবুধাবী, দুবাই, বাহরাইন ও ওমানের সাহাম।

নুরুল ইসলাম নাহিদ জানান, এ বছর বাংলা দ্বিতীয়পত্র এবং ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয়পত্র ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া হবে। শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান ও খেলাধুলা নামে একটি নতুন বিষয় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এ বিষয়েও সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

মন্ত্রী জানান, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসিজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই এমন প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থী স্ক্রাইব (শ্রুতি লেখক) সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এ ধরনের পরীক্ষার্থীদের এবং শ্রবণ প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে।

মতামত