টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মোবাইল মেরামত করে ভাগ্য বদল রাঙ্গুনিয়ার মোহাম্মদ আলীর

আব্বাস হোসাইন আফতাব 
রাঙ্গুনিয়া  প্রতিনিধি

Rangunia-ali-pic1চট্টগ্রাম, ২৮ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : মোবাইল মেরামত করে ভাগ্য বদল হয়েছে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সৈয়দবাড়ী গ্রামের মোহাম্মদ আলীর। কারিগরী বিদ্যায় পারদর্শী আলী মোবাইল মেরামত ও ট্রেনিং সেন্টার করে বদলে দিয়েছে তার বেকার জীবন। রোয়াজার হাটে প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলে মাসিক ৮০ হাজার টাকা আয় করছেন তিনি। বেষ্ট মোবাইল সার্ভিসিং ও ট্রেনিং সেন্টার নামে এ প্রতিষ্ঠান অর্ধ শতাধিক প্রশিক্ষনার্থী প্রশিক্ষন নিয়ে তাদের বেকারত্ব ঘুচিয়েছে। তার প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষন নিয়ে রাঙ্গুনিয়া ছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে মোবাইল মেরামতের দোকান দিয়ে নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটিয়েছে। বেকার যুবকদের পথিকৃৎ মোহাম্মদ আলীর নাম এখন সবার মুখে মুখে। মোবাইল মেরামত করে ব্যাপক অর্থ বিত্তের মালিক হওয়া যায় তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত মোহাম্মদ আলী। বড় পরিবারের সাংসারিক খরচ মেটানো ছাড়াও সে তার প্রতিষ্ঠানে নিজ আয়ের অর্থে প্রতিষ্ঠানে এসি লাগিয়েছে, নান্দনিকভাবে সাজিয়েছে তার প্রতিষ্ঠান। মোবাইল সার্ভিসিংয়ের পাশাপাশি দামী মোবাইলও মোবাইলের সরঞ্জাম বিক্রি করে সে। দামী দেশী বিদেশী যেকোনো মোবাইল নষ্ট হলে কম সময়ে কম খরচে সে মোবাইল মেরামত করতে পটু। এজন্য মোবাইল ব্যবহারকারীরা তার উপর আস্থা রেখে মোবাইল মেরামত করতে দোকানে ভীড় করে। তার পরিবার এখন স্বচ্ছল পরিবারে পরিণত হয়েছে। তার প্রতিষ্ঠানের সুনাম ছড়িয়েছে রাঙ্গুনিয়া ছাড়া চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে। সে দোকানে প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মোবাইল মেরামত করে ব্যস্ত সময় পার করে থাকে। এছাড়াও তার দোকানে বর্তমানে মোবাইল সার্ভিসিং প্রশিক্ষনার্থী ও সহকারি হিসেবে ১০/১৫ বেকার শিক্ষিত যুবক কর্মরত রয়েছে।

মোবাইল মেকানিক মোহাম্মদ আলী জানান, ১৯৯৯ সালে রাঙ্গুনিয়া কলেজ থেকে øাতক পাশ করে চাকুরীর জন্য প্রানপন চেষ্ঠা করেও ভাল চাকুরী না পাওয়ায় দীর্ঘদিন বেকার সময় পার করে। এক বন্ধুর পরামর্শে চট্টগ্রাম শহরের রেয়াজুদ্দিন বাজারের এইম টেক্নোলজি নামে একটি মোবাইল মেরামত প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষন নেয়। কয়েক বছর কাজ শিখে মাত্র ২০ হাজার টাকা পুঁজি নিয়ে রাঙ্গুনিয়ার রোয়াজারহাটে একটি মোবাইল মেরামতের দোকান খুলে। এরপর থেকে তার ভাগ্যের চাকা ঘুরে যায় । গত ১২ ধরে সে মোবাইল মেরামতের কাজ করে নিজে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছেন অন্যকেও স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম মজুমদার জানান, সব কাজই সম্মানের। মোহাম্মদ আলী মোবাইল মেরামত করে নিজেই তার বেকারত্ব ঘুচিয়েছে অন্য বেকারদের কাজ শিখিয়ে তাদের বেকারত্ব ঘুচাচ্ছে। তার মতো বেকার যুবকদের কারিগরী শিক্ষা গ্রহন করে বেকারত্বে অভিশাপ থেকে মুক্ত হওয়া দরকার।

মতামত