টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ইউপি নির্বাচন: রাউজানে আওয়ামীলীগের দোড়ঝাপ, মাঠে নেই বিএনপি

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

vot-upচট্টগ্রাম, ২৬ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : চট্টগ্রামের রাউজানে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সম্ভাব্য প্রার্থী হতে আওয়ামী লীগ নেতাদের মাঝে দোড় ঝাপ লক্ষ করা গেলেও বিএনপির নেতাদের তেমন কোন আগ্রহ দেখা যাচ্ছেনা। এ উপজেলায় ১৪ টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রতিক নৌকা পেতে র্অধশতাধিক সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মরিয়া হয়ে উঠেছে। আগামী ফেব্রুয়ারীতে তফশীল ঘোষনায় দেশব্যাপী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে রাউজানেও সরকার দলীয় প্রার্থীরা প্রকাশ্যে ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে গেলেও বিএনপি প্রার্থীদের তেমন কোন তৎপরতা এখনো পর্যন্ত দেখা যায়নি । তবে একটি সুত্রে জানাগেছে বিএনপি সমর্থিত অনেক চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ইতিমধ্যে নগরীর বিভিন্ন স্থানে বৈঠক করে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এছাড়াও সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নিজ দলের জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে মনোনয়ন পাওয়ার আশায় যোযোগ রাখছেন। ১৪টি ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা এলাকার বিবাহ, মেজবান, সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মানুষের সর্মথন পাওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ উপজেলায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন ১ নম্বর হলদিয়া ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ডিউ গ্রুপের পরিচালাক মোহাম্মদ সেলিম, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মোমেন, আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুল আলম, সাংবাদিক এম. বেলাল উদ্দিন, আলহাজ্ব দিদারুল আলম।

২ নম্বর ডাবুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আবদুর রহমান চৌধুরী, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, ।

৩ নম্বর চিকদাইর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান কাজী দিদারুল আলম, প্রিয়তোষ চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা জসিম উদ্দিন।

৪ নম্বর গহিরা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা নাজিম উদ্দিন তালুকদার, বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুল আবছার বাঁশি, নাজিম উদ্দিন, বিএনপি নেতা সাবেক চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ।

৬ নম্বর বিনাজুরী ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা সুকুমার বড়ুয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান সংঘপ্রিয় বড়ুয়া, আওয়ামী লীগ নেতা রবীন্দ্র লাল চৌধুরী, বিএনপি নেতা সাবেক চেয়ারম্যান এমদাদুল হক, জিএম মোরশেদ।

৭ নম্বর রাউজান ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ নেতা বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী, বিএনপি নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান ফয়েজুল ইসলাম চৌধুরী টিপু, হাসান মোহাম্মদ জসিম, জাতীয় পার্টি নেতা শফিকুল ইসলাম।

৮ নম্বর কদলপুর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মুজাহিদ উদ্দিন লিংকন, তসলিম উদ্দিন চৌধুরী, জাতীয় পার্টি নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল হক লাভলু, বিএনপি নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান এস এম ফারুক, ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী।

৯ নম্বর পাহাড়তলী ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা রোকন উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামীলী গের ত্যাগী নেতা দোস্ত মোহাম্মদ খান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুর নবী, আওয়ামী লীগ নেতা কামাল, আবুল বশর।

১০ নম্বর পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস উদ্দিন আহম্মদ, আওয়ামী লীগ নেতা চন্দন দে, হোসেন মাহমুদ, বিএনপি নেতা নুরুল ইসলাম বাবুল, মাওলানা শফিউল আলম।

১১ নম্বর পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাহাবউদ্দিন আরিফ, আলহাজ আবদুল সালাম।

১২ নম্বর উরকিরচর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার চৌধুরী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী জসু, সাবেক চেয়ারম্যান শেখ সিরাজুল ইসলাম, লেখক মহিউদ্দিন ইমন, আনোয়ার আজম, সৈয়দ নুর, এস.এম. জাহাঙ্গীর আলম সুমন।

১৩ নম্বর নোয়াপাড়া ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা দিদারুল আলম, শান্তি পদ বৈদ্য, বিএনপির নেতা জানে আলম।

১৪ নম্বর বাগোয়ান ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা ভুপেশ বড়ুয়া, যুবলীগনেতা মোশারফ হোসেন ছোটন, বিএনপির নেতা কাজী আবুল বশর, শামীম আল আজাদ।

১৫ নম্বর নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা সোহরাওয়ার্দী সিকদার, মাহমদুল ইসলাম, বিএনপি নেতা কামাল উদ্দিন।

এ নিয়ে নোয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম বলেন, গত ৩ বার নোয়াপাড়া ইউপির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করে আসছি। বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক হিসেবে সব সময় চেষ্টা করেছি জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে দেশ কে এগিয়ে নিতে। শেষ বয়সে এসে সাধারণ জনগণের অনুপ্রেরণায় আবারো চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রতিক নৌকা নিয়ে নির্বাচন করতে আগ্রহ প্রকাশ করছি।

মতামত