টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কর্ণফুলী থেকে চার অবৈধ জেটি উচ্ছেদ, জরিমানা

2016_01_17_18_26_38_6KbBxoQVDNbhIJ5PhuUBw87qx2AeiY_800xautoচট্টগ্রাম, ১৭ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস):: নগরীর বাকলিয়া ও কর্ণফুলী থানার শাহ আমানত সেতু এলাকা ও শিকলবাহা খালে অভিযান চালিয়ে কর্ণফুলী নদীর তীর থেকে ৪টি অবৈধ জেটি উচ্ছেদ করেছে চট্রগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় একটি ডকইয়ার্ড সীলগালাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রোববার চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের অথরাইজড অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবুল হাশেম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জেটি চারটি উচ্ছেদ করেন। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ অধ্যাদেশ-১৯৭৬ এর আওতায় এ অভিযান চালানো হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবুল হাশেম বলেন, শাহ আমানত সেতুর নীচে দুই পাশে অবৈধভাবে বালির বস্তা, বাঁশ ও কাঠ দিয়ে ৪টি অবৈধ জেটি গড়ে তোলা হয়েছিলো। স্থানীয় প্রভাবশালী লোকজন দ্বারা পরিচালিত ওই জেটি গুলো মূলত কয়লা ও সিমেন্টের বস্তা লাইটারেজ থেকে সড়কপথে পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত হয়। এই অবৈধ ঘাট ব্যবহার করে স্থানীয় সিন্ডিকেটটি বন্দরের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বছরে কয়েক কোটি টাকার ব্যবসা করে আসছে। আজ অভিযান চালিয়ে অবৈধ জেটি চারটি উচ্ছেদ করা হয়।

তিনি বলেন, এসময় কয়লা আমদানীকারক আতিকুর রহমানের মাঝি বাদল মিয়াকে ১০ হাজার ও কয়লা খালাসকারি জাহাজ এর মাস্টারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া উচ্ছেদকৃত জেটিতে ব্যবহৃত কাঠ ও একটি অবৈধ ড্রেজারের পাইপ উম্মুক্ত নিলামে বিক্রি করে ৬৩ হাজার টাকা আদায় করা হয়।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ অধ্যাদেশ-১৯৭৬ এর আওতায় এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে বন্দর কর্তৃপক্ষের ভূমি উপ-ব্যবস্থাপক জনাব জিল্লুর রহমান এবং হারবার বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ, মহানগর পুলিশ, স্থানীয় কর্ণফুলী থানা ও চট্রগ্রাম বন্দরের নিজস্ব আনসার বাহিনীর সহায়তা করেন বলে জানান তিনি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত