টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মানিকছড়িতে শ্বাসরোধ করে স্ত্রী হত্যা! স্বামী পলাতক

আবদুল মান্নান
মানিকছড়ি প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৫ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :   মানিকছড়ির বড় ডলু এলাকায় ২ সন্তানের জননী দেলোয়ারা বেগম (৫০)কে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ঘরে তালা ঝুলিয়ে নিষ্ঠুর স্বামী মোরশেদ আলম পালিয়ে গেছে ! শুক্রবার (১৫ জানুয়ারী)দুপুরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বড়ডলু গ্রামের মরহুম আবদুল জব্বারের মেয়ে দেলোয়ারা বেগমকে ৩৫ বছর আগে সরকারি চাকুরীজীবি (৪র্থ শ্রেণি) মো. মোরশেদ আলম বিয়ে করে ঘর সংসার করছিল। তাদের সংসারে শিউলী আক্তার (৩০) ও মো. সোহেল(২৬) নামের দুজন সন্তান রয়েছে। তারা উভয়ে বিবাহিত হলেও বসবাস জেলা সদর ও দীঘিনালায়। বছর দু’ এক আগে মো. মোরশেদ আলম অবসর গ্রহন করে এলাকায় এসে নিজ ভ‚মিতে ঘর তৈরি করে স্বামী-স্ত্রী বসবাস করছিল। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ প্রতিবেশিরা তাদের নড়াচড়া না দেখে বাড়িতে খোঁজ করতে আসেন। এ সময় ঘরের বাহিরে তালা ঝুলতে দেখে সন্দেহ হয়। পরে ঘরের পিছনের দিকে গিয়ে জানালা খোলা দেখে ঘরে সকলের নজর পড়ে। এ সময় মহিলার নিথর দেহ দেখা যায়। পরে তারা পুলিশকে বিষয়টি জানালে থানার এস.আই মো. মকবুল আহম্মদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। এলাবাসীদের সামনে পুলিশ তালাবদ্ধ ঘরের দরজা ভেঙ্গে একটি কক্ষে মহিলার নিথর দেহের খোঁজ পান পুলিশ। তবে স্বামী মো.মোরশেদ আলম পালিয়ে থাকায় এবং নিহতের মুখে রক্তের নমুনা থাকায় এটি শ্বাসরোধে হত্যা বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে জেলা হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করেন। এদিকে নিহতের ছেলে ও মেয়ে মায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে মানিকছড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছে বলে জানা গেছে। এস.আই মো. মকবুল আহম্মদ জানান, বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। আইনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত