টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসায়ীরা ব্যবহার করছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি

bচট্টগ্রাম, ১২ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : চট্টগ্রামে বিপুল পরিমাণ ভিওআইপি (ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রোটোকল) সরঞ্জাম জব্দ এবং এ অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত একজনকে আটক করেছে র‌্যাব। আটক ব্যাক্তির মো. রাশেদ নিজাম। তিনি জেলার বোয়ালখালী উপজেলার সারোয়াতলী এলাকার মৃত ইউসুফ মিয়ার পুত্র।

সোমবার রাতে মহানগরীর পাঁচলাইশ থানার শোলকবহর আল মাদানী রোড়ের এ/পি বাসা নম্বর-১২১২/বি, ৬ষ্ঠ তলা, ফ্লাট নং-৬০১ (দক্ষিন পার্শ্বে) একটি ভবনে এ অভিযান চালায় র‌্যাব।

মঙ্গলবার দুপুরে এ উপলক্ষে র‌্যাব-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ভিওআইপি সরঞ্জাম জব্দের খবর জানান র‌্যাব। জব্দ এসব সরঞ্জামের আনুমানিক বাজার মূল্য ২২ লাখ টাকা বলে জানিয়েছেন র‌্যাব।

জব্দ করা সরঞ্জামের মধ্যে রয়েছে ২টি গ্যাটওয়ে এডপ্যাক মেশিন (যার প্রতিটি মেশিনে ২৫৬টি পোর্ট এবং প্রতিটি পোর্টে ১টি করে সর্বমোট ৫১২ টি সীম সংযুক্ত), ১৫টি জিএসএম এন্টিনা, ৫টি মডেম (৪টি বাংলা লায়ন এবং ১টি কিউবি), ৪ টি রাউটার ৪টি ইথারনেট সুইচ, ৪ টি সিপিইউ, ১টি ল্যাপটপ,২টি এলসিডি মনিটর, এবং ৭ হাজার ৪৭৪টি সিম (রবি সিম-৩৪১২টি, গ্রামীন-১১৬২টি, এয়ারটেল-১৮০০টি, বাংলালিংক-২০০টি এবং টেলিটক-৯০০টি)

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ-পরিচালক স্কোয়াডন লিডার সাফায়েত জামিল ফাহিম জানান, সোমবার রাত ১১টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শোলকবহর আল মাদানী রোডে একটি বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব দল। এসময় উক্ত বাসা ঘেরাও করে বাসর ভিতরে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা ভিওআইপি ব্যবসার প্রমাণ মেলে। এসময় এ অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত মো. রাশেদ নিজামকে আটক করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দীর্ঘদিন ধরে কিছু ব্যক্তি ওই বাসাটি ভাড়া নিয়ে অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় অন্যারা। এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত মূল মালিককে আটকের চেষ্টা চলছে বলে জানান র‌্যাব।

মতামত