টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সংলাপের মাধ্যমে সমাধান চান খালেদা

চট্টগ্রাম, ০৫  জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) : নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্বের অবসান ঘটাতে সংলাপের মাধ্যমে একটি গ্রহণযোগ্য পথ খুঁজতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্রের জন্য আলাপ-আলোচনা মাধ্যমে একটি পথ বের করি। সংলাপের মাধ্যমেই সমাধান বের করতে হবে।’ ক্ষমতাসীনদেরই এই দায়িত্ব নিতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত জনসভায় খালেদা জিয়া এ কথা বলেন।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে বিএনপি এই জনসভার আয়োজন করে। দলটি এই দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করছে। জনসভায় খালেদা জিয়া ভবিষ্যতেও এই দিনটি পালনের ঘোষণা দেন।

আওয়ামী লীগকে উদ্দেশে করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, সঠিক পথে আসুন, গণতন্ত্রের পথে আসুন। তিনি সরকারকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এটা না হলে কখন জনগণ জেগে উঠবে তা বলা যায় না।

বিএনপি চেয়ারপারসন অভিযোগ করেন, বিরোধী দলকে দমনের জন্য সরকার একের পর এক আইন করছে। সংবিধান পরিবর্তন করেছে নিজের স্বার্থে। এই পরিবর্তনে জনগণের ভালোর জন্য কিছু নেই। তিনি বলেন, কেবল ২০১৪ সালের নির্বাচন নয় ২০০৮ সালে ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনও পাতানো নির্বাচন ছিল।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘একটু ফেয়ার ইলেকশন’ হলেই বিএনপি তাতে জযলাভ করে। কিন্তু আওয়ামী লীগের অধীনে ‘কোনোদিন’ জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে ‘হবে না’।

খালেদা অভিযোগ করেন, বিরোধীদের ‘হয়রানি-নির্যাতনের’ জন্য সরকার পুলিশ বাহিনীকে ব্যবহার করছে। ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভাইয়েরা এখানে আছেন। তাদের প্রতি বলব, এরা তো এই বাংলাদেশেরই ছেলে। এতো অত্যাচার, এতো কষ্ট, গুম খুন করা .. এটা কি ঠিক?’

‘আপনাদের নিয়ে অন্যায় কাজ করাচ্ছে। আমি বলছি না পুলিশ বাহিনী খারাপ। কিন্তু আপনাদের নষ্ট করছে।’

সমাবেশে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমরা একসঙ্গে থাকতে চাই। বাংলাদেশ ছোট্ট একটি দেশ। আমরা যদি সকলে মিলে-মিশে থেকে কাজ করি, বাংলাদেশকে আমরা একটি সুন্দর দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারব।’

পৌরসভা নির্বাচনের সময় বিএনপির নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ না করায় খালেদা জিয়া প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘তিনি (সিইসি) কি এমন লাটসাহেব হয়েছেন যে দেখা করতে পারেন না।’ খালেদা জিয়া সিইসিকে অথর্ব ও মেরুদ-হীন বলে উল্লেখ করেন। সিইসির কথা বলারও সাহস নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মতামত