টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানের এক ব্যবসায়ী ও তার ড্রাইভার চারদিন ধরে নিখোঁজ !

দুই পরিবারে কান্নার রোল থামছেনা, স্বজনদের অভিযোগ অপহরণ

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

Raozan-Opohoron-picচট্টগ্রাম, ০২ জানুয়ারি (সিটিজি টাইমস) :চট্টগ্রামের রাউজানের হারবাল ব্যবসায়ী আবদুল হাকিম ও তার ড্রাইভার ইসমাইল অপহরণের ৪ দিন পেরোলেও এখনো তাদের কোন খোঁজ মেলেনি। তাদের পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, গত ২৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টায় চট্টগ্রামের নগরীর বাহির সিগন্যাল মোড় থেকে তারা নিখোঁজ হয়। পরিবারের দাবী তাদের গাড়ী গতিরোধ করে অপহরণকারীরা তুলে নিয়ে গেছে। অপহৃত আবদুল হাকিম রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের পাঁচখাইন এলাকার হাজী রাজামিয়ার বাড়ির হাজী আলী মদনের পুত্র। তার ড্রাইভার মোহাম্মদ ইসমাইল একই ইউনিয়নের ব্রাম্মদাশ পাড়ার মোহাম্মদ ইদ্রিসের পূত্র। হাকিম উপেজলার নোয়াপাড়া পথেরহাটের দেশ হারবাল নামের একটি আয়ুবেদীয় ওষাধালয়ের সত্তাধিকারী। এছাড়াও রিয়েল এস্টেট ব্যবসার সাথেও জড়িত হাকিম। নগরীর চান্দগাঁও এলাকায় ওয়েল টাওয়ারের আটতলার একটি ফ্ল্যাটে তিনি পরিবার নিয়ে থাকেন। অপহরণের ঘটনায় চান্দগাঁও থানায় ৩০ ডিসেম্বর মামলা দায়ের করলেও এখানো তার কোন হদিস পাওয়া যায়নি আবদুল হাকিমের।

শনিবার বিকেলে অপহৃত হাকিমের ছোট ভাই পারভেজ আলম এ প্রতিবেদককে কান্না বিজড়িত কণ্ঠে বলেন, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নোয়াপাড়া পথেরহাটের দেশ হারবার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে গাড়ী নিয়ে ড্রাইভারসহ নগরীর ওয়েল টাওয়ারের বাসার উদ্যোশে রওনা দেয়। পথিমধ্যে বাহির সিগনাল এলাকায় পৌছালে সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে বড়ভাই আবদুল হাকিম ও তার গাড়ি চালক ইসমাইলকে ১০/১২ জন অস্ত্রধারী অপহরণ করে তুলে নিয়ে যায়। আমার ভাইকে কি কারণে অপরহরণ করা হয়েছে আপনারা একটু লিখে বের করেন। ভাইয়ের অপহরণের বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ভুপেশ বড়ুয়া ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আরিফুল আলমের মাধ্যমে আমরা স্থানীয় সাংসদ এবিএম ফজলে করিম এমপিকে জানিয়েছি।

এদিকে অপহৃত ড্রাইভার ইসমাইলের মা ফাতেমা বেগম ছেলের খোঁজ না পেয়ে বার বার জ্ঞান হারাচ্ছেন। জ্ঞান ফিরে বলেন, ছেলে মঙ্গলবার বিকেলে বাসায় এসে আবার কোম্পানীর সাথে গাড়ীতে গেছে। বুধবার টেলিফোনে সর্বশেষ কথা হয়েছে। বৃহষ্পতিবার ছেলের খবর নিতে টেলিফোন করলে মোবাইল ফোন বন্ধ পাচ্ছি বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। গত শনিবার নোয়াপাড়া পথেরহাটে হাকিমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দেশ হারবালে গিয়ে বিষয়টি নিয়ে আলাপ করতে চাইলে তারা প্রসঙ্গটি নিয়ে বেশি কিছু বলতে রাজি হনননি।

মামলার এজাহারে হাকিমের স্ত্রী তাসফিয়া জানান, মঙ্গলবার রাতে আব্দুল হাকিম নিজের নিশান পাজেরো গাড়ি চালিয়ে চান্দগাঁও এলাকায় বাসায় ফিরছিলেন। বাহির সিগন্যাল এলাকায় একটি কালো রঙয়ের কার ও সাদা মাইক্রোবাস সড়কে আড়াআড়িভাবে অবরোধ সৃষ্টি করে আব্দুল হাকিমের গাড়ির গতিরোধ করে। অপহরণকারীরা হাকিম ও গাড়ি চালক ইসমাইলকে গাড়ি থেকে নামিয়ে মাইক্রোবাসে তুলে বহদ্দারহাটের দিকে চলে যায়। আব্দুল হাকিমের গাড়িটি পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে।

বিষয়টি নিয়ে রাউজান থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, হাকিমের এক আত্মীয়ের মাধ্যমে জানতে পারছি হাকিম ও তার ড্রাইভারের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। তাদের আলাউদ্দিন টাওয়ার থেকে কারা নাকি নিয়ে গেছে। হাকিম বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসা ও জালিয়তির সাথে জড়িত বলে জানান ওসি প্রদীপ কুমার দাশ। তিনি আরো জানান, কিছুদিন আগে আব্দুল হাকিমের এক ভাইকে আমরা বিভিন্ন অপরাধে আটক করে জেল হাজতে পাঠিয়েছিলাম।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত