টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা: মিরসরাইয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী ও প্রার্থীর স্বামীর উপর হামলা

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি

Mirsarai-Hamla-Photo-1চট্টগ্রাম, ৩১ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস): মিরসরাইয়ে নির্বাচন পরবর্তি সহিংসতায় এক কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল ইসলাম ও সংরক্ষিত আসনে মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী বিবি রহিমা রুমার স্বামী মো. শামসুদ্দীন জীবনের উপর হামলা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মিয়া বাড়ির সামনে ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডে পৃথক হামলা ঘটনা ঘটে।

পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী (বেনিটি ব্যাগ) বিবি রহিমা রুমা অভিযোগ করেন, আমার স্বামী বৃহস্পতিবার সকালে বাসা থেকে বের হয়ে দাঁত ব্রাশ করতে পুকুর ঘাটে যায়। এসময় আমার প্রতিপক্ষ কাউন্সিলর প্রার্থী শাহানা আক্তারের ৩ ছেলে শাকিল, শাওন, শিমুলসহ ৫-৬ জনের একটি সন্ত্রাসী দল আমার স্বামীর উপর অতর্কিত হামলা করে। এসময় তারা লোহার রড দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে এবং এলোপাতাড়ি লাথি, কিল, ঘুষি মারে। পরে আমরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমল্পেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে নিয়ে যায়। তিনি আরো অভিযোগ করেন, ভোটের দিন সব কেন্দ্রে জাল ভোট প্রদান করে আমার নিশ্চিত বিজয় ছিনিয়ে নেয়ার পরও ক্ষান্ত হয়নি শাহানা। ক্ষিপ্ত হয়ে আমার স্বামীর উপর হামলা করে। হামলার ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন কাউন্সিলর শাহানা আক্তার।

এছাড়া পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্ধীতায় হেরে গিয়ে অপর প্রার্থীর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে পরাজিত এক কাউন্সিলর প্রার্থী। আহত কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল ইসলামকে বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত নুরুল ইসলাম জানান, বৃহষ্পতিবার সকালে বাড়ী বের হলে পৌরসভা নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডের পরাজিত প্রার্থী সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে জাফর সাদেক মামুন, আরাফাত,আশরাফ,নাজমুল, হান্নান, ইকবাল, রনি, মমিন সহ অজ্ঞাত ২০/২৫জন লোক বটতল এলাকায় আমার পথরোধ করে। এসময় সাইফুল ইসলাম নির্বাচনে তার বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার অভিযোগ তুলে আমার উপর হামলা চালায়। তার নেতৃত্বে থাকা সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র, লোহার রড ও লাকডি দিয়ে আমাকে বেদড়ক প্রহারে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় নুরুল ইসলামকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স মস্তাননগর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে আহত নুরুল ইসলাম মিরসরাই থানায় একটি অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান ।

তবে হামলার বিষয়টি অস্বীকার করে সাইফুল ইসলাম বলেন, নুরুল ইসলামের সাথে আমার লেনদেন রয়েছে। এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তার সাথে সামান্য কথা কাটাকাটি হয়।

মতামত