টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাই ও বারইয়ারহাটে বিএনপি প্রার্থীদের সুষ্ঠ নির্বাচনের আশ্বাস প্রশাসনের

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

Mirsarai-Motbinimoy-Photo-2চট্টগ্রাম, ২৩ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):   মিরসরাই ও বারইয়ারহাট পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী মেয়র, সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের সাথে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় করেছে উপজেলা প্রশাসন। মতবিনিময়কালে কয়েকজন কাউন্সিলর ও বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থীরা সংশয়ে থাকলেও সুষ্ঠ নির্বাচনের বিষয়ে তাদের আশস্ত করেছেন উপজেলা রির্টানিং কর্মকর্তা। মতবিনিময়কালে সরকারদল সমর্থিত ও বিএনপি সমর্থিত মেয়র এবং কাউন্সিলর প্রার্থীরা অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ করেন। আচরণবিধি লঙ্গনের সকল অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ারও ঘোষণা দেওয়া হয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে। বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) জেলা পরিষদ অডিটিরিয়ামে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভার সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া আহম্মদ সুমন।

সভায় সহকারি রির্টানীং কর্মকর্তা তোফায়েল হোসেনের উপস্থাপনায়, সহকারি কমিশনার (ভূমি) সরকার আবদুল্লাহ আল মামুন, নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট জিয়ারুল ইসলাম, মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ এমকে ভূঁঞা, জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল কবির, মিরসরাই পৌরসভার মেয়র প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন (নৌকা), রফিকুল ইসলাম পারভেজ (ধানের র্শীষ) মির্জা আরিফ মঈন উদ্দিন (হাতপাখা) এবং বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন (নৌকা) ও মঈন উদ্দিন লিটন (ধানের র্শীষ) এর পক্ষে তার বাবা খায়েজ আহম্মদ সহ কাউন্সিলর প্রার্থীরা বক্তব্য রাখেন।

মতবিনিময়কালে মিরসরাই পৌরসভায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী রফিকুল ইসলাম পারভেজ (ধানের শীষ) অভিযোগ করেন, পৌরসভার ৩ নম্বর ও ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কয়েকটি বাড়িতে ইতোমধ্যে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা অবস্থান করছেন। সন্ত্রাসীরা আমার পোস্টার, ব্যানার, স্টিকার ছিড়ে ফেলতেছে। সরকারী দলের প্রার্থীর লোকজন তার প্রচার-প্রচারনায় বাঁধা সৃষ্টি করছেন। রিটানিং অফিসার বরাবরে একাধিক অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেন পারভেজ। সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য প্রশাসনকে তিনি নিরপেক্ষ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।

মিরসরাই পৌরসভায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন (নৌকা) বলেন, অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় উৎসব মুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিএনপি প্রার্থী কেন্দ্র থেকে দলীয় এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য মিথ্যা অভিযোগ করছেন। তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন জায়গায় আমার পোষ্টার ও ব্যানার ছিঁড়ে ফিলেছে দূর্বৃত্তরা। আমিও রিটার্নিং অফিসার বরাবরে তিনটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

বারইয়ারহাট পৌরসভায় বিএনপি সমর্থীত প্রার্থী মঈন উদ্দিন লিটনের (ধানের শীষ) বাবা খায়েজ আহম্মদ অভিযোগ করেন, নির্বাচনের কোন পরিবেশ নেই বারইয়ারহাটে। সার্বক্ষনিক সন্ত্রাসীরা মোটর সাইকেল নিয়ে মহড়া দিচ্ছেন আমাদের বাড়ির চারপাশে। ইতমধ্যে আমার পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা করেছে সরকারদলীয় প্রার্থীর লোকজন। সুষ্ঠ নির্বাচনের লক্ষ্যে তিনি সেনাবাহিনী মোতায়েনের জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবী জানান।

বারইয়ারহাট পৌরসভায় আওয়ামীলীগের প্রার্থী নিজাম উদ্দিন (ভিপি নিজাম) বলেন, বিএনপির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থী ছাড়া অন্য কোন প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ করছেনা। বারইয়ারহাট পৌরসভায় উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিএনপি প্রার্থীর বাবার অভিযোগ মিথ্যা বানেয়াট।

বারইয়ারহাট পৌরসভার ৫ নম্বর কাউন্সিলর প্রার্থী মোশারফ হোসেন বলেন, আমাদের হুমকি দেয়া হচ্ছে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে লাভ নেই। ভোটের দিন ১০টার মধ্যে ভোটকেন্দ্র বন্ধ করে দেয়া হবে। আমাদের প্রতিনিয়ত হুমকি দেয়া হচ্ছে নির্বাচন থেকে সরে যেতে। বর্তমানে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি।

মিরসরাই থানার ওসি ইমতিয়াজ এমকে ভূইয়া ও জোরারগঞ্জ থানার ওসি জাহিদুল কবির বলেন, আগামী ২৭ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোটর সাইকেলের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হবে। ভোট কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করলে যেকোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

রিটানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া আহমেদ সুমন বলেন, প্রার্থীরা যদি আচরনবিধি মেনে নির্বাচন কার্যক্রম পরিচালনা করেন তাহলে সুষ্ঠ নির্বাচন হতে কোন বাধা নেই। সুষ্ঠ নির্বাচন উপহার দিতে নির্বাচন কমিশন বদ্ধপরিকর। ভোটের দিন কোন প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘন, কেন্দ্র দখল ও ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটলে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হবে। মতবিনিময় শেষে সুষ্ঠ নির্বাচনের লক্ষ্যে সকল প্রার্থী প্রশাসনের সাথে অঙ্গিকারবদ্ধ হয়।

মতামত