টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রুহিনী কুমার শুধুমাত্র একজন শিক্ষকের নাম নয়; এটা একটা দীর্ঘ ইতিহাসের নাম

বাবু রুহিনী কুমার শীলের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা

নিজস্ব প্রতিবেদক

fatickchari(songbordona)picচট্টগ্রাম, ২০ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):  রুহিনী কুমার শুধুমাত্র একজন শিক্ষকের নাম নয়; এটা একটা দীর্ঘ ইতিহাসের নাম। একটানা ৪২ বছর ধরে একই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করে যিনি ব্যাক্তি পরিচয়ের সীমানা অতিক্রম করে নিজেই একটা প্রতিষ্টানের রুপ নিয়েছেন। নির্লোভ মানুষটি বিদ্যালয়ের প্রতিষ্টালগ্ন থেকে শুরু করে অবসর গ্রহনের পূর্ব পর্যন্ত এ অঞ্চলে দিব্যি শিক্ষার আলো জ্বালিয়ে দীর্ঘ ইতিহাস রচনা করেছেন। খুব সাদাসিধে জীবন-যাপন করা অসাধারণ মানুষটির বিদায়লগ্নে এমনইভাবে তাঁর সুদীর্ঘ জীবন নিয়ে আলোকপাত করেন বক্তারা। গত শনিবার ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট পৌরসভাধীন ইমাম নগর গ্রামের পূর্ব ধুরুং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ আয়োজিত বিদ্যালয়ের প্রতিষ্টাকালীন শিক্ষক বাবু রুহিনী কুমার শীলের বিদায় সংবর্ধনা সভায় বক্তারা এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এস.এম তরিক উল¬াহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন, ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম. তৌহদুল আলম বাবু। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘প্রবীণ শিক্ষক রুহিনী বাবু দীর্ঘ সময় ধরে এ অঞ্চলের মানুষের মাঝে জ্ঞানের আলোর সঞ্চালন করে এসেছেন। তার বিকশিত আলোকচ্ছটায় অন্ধকারাছন্ন জনপদটি আজ সর্বাংশে আলোকিত হয়ে উঠেছে’।
অনুষ্টানের বিশেষ অতিথি শিক্ষক নেতা নাছির উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘তিনি শুধুমাত্র একজন শিক্ষক ছিলেন না। শিক্ষকের পরিধি ডিঁঙ্গিয়ে তিনি বর্ণাঢ্য একটা ইতিহাসের নায়ক হয়ে উঠেছিলেন। তাঁর বর্ণাঢ্য জীবন থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে।’

অনুষ্টানের প্রধান আলোচক অধ্যক্ষ সেলিম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘শিক্ষক বাবু রুহিনী কুমার শীলের দেখানো পথের অনেক পথিক আজ তাঁদের গন্তব্য খুঁজে পেয়েছেন। আগামীতেও যারা এ পথ ধরে হাঁটবেন তাদের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় তিনি চিরকাল বেচেঁ থাকবেন।’

সহকর্মী শিক্ষক সুজন কান্তি দে তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘বাবু রুহিনী কুমার শীল একজন সফল শিক্ষক। বিদ্যালয় প্রতিষ্টার পর থেকে তিনি দীর্ঘ সময় তিনি বিনা বেতনে শিক্ষকতা করেছেন। নির্মোহ, কর্মচঞ্চল এ সহযোদ্ধা আজীবন আমাদের কাছে অনুপ্রেরনা হয়ে থাকবেন।’

সংবর্ধনা অনুষ্টান আয়োজক কমিটির আহবায়ক, প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ সদস্য সাংবাদিক মীর মাহফুজ আনাম বলেন, ‘আমাদের শিক্ষাগুরু বাবু রুহিনী কুমার শীল কখনো শিক্ষক, কখনো বন্ধু আবার কখনোবা পিতার ভূমিকায় আমাদের আলোর পথের দীক্ষা দিয়েছেন। বঠবৃক্ষের মতো তাঁর ছাঁয়ার তলে আমরা বেড়ে উঠেছি। এমন আলোর পথের দিশারীকে সংবর্ধনা অনুষ্টানের মধ্য দিয়ে সম্মান জানানোর সুযোগ পেয়ে আমরা আমাদের ভালোবাসার কিঞ্চিৎ বহি:প্রকাশ ঘটাতে পারলাম।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত