টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে ৩০ লাখ লোক নিয়ে জশনে জুলুছের র‌্যালি

joচট্টগ্রাম, ১৯ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):  মহান ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষ্যে ১২ রবিউল আউয়াল আয়োজিত জশনে জুলুছ বিশ্বের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় র‌্যালি বলে জানিয়েছে আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে আগামী ২২ ডিসেম্বর এবং ২৫ ডিসেম্বর ঢাকা ও চট্টগ্রামে জশনে জুলুছে ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন উপলক্ষ্যে এ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, সৈয়দ মুহাম্মদ তৈয়ব শাহ্ রাহমাতুল্লাহি আলাইহির নির্দেশে আন্জুমানে রাহমানিয়া আহিমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনায় ১৯৭৪ সালে যে জনশে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) এর সূচনা এ চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয়েছিল তা আজ বিশ্বের প্রধান ও সর্ববৃহৎ ধর্মীয় র‌্যালিতে রূপান্তর হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রতি বছরের মতো এবারও আগামী মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) ঢাকায় এবং শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) চট্টগ্রামে পবিত্র জশনে জুলুছে ঈদে মিলাদুন্নবীর আয়োজন করা হয়েছে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ঢাকা মোহাম্মদপুরের খানকায়ে কাদেরিয়া সৈয়্যদিয়া তৈয়্যবিয়া থেকে জুলুস বের করা হবে। রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জামেয়া কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়া আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে সমাবেশ ও মুনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে।

শুক্রবার সকাল ৮টায় বন্দর নগরী চট্টগ্রামের ষোলশহর আলমগীর খানকায়ে কাদেরিয়া সৈয়্যদিয়া তৈয়্যবিয়া থেকে জুলুছ বের হবে। বিবিরহাট, মুরাদপুর, কাতালগঞ্জ, চকবাজার, চন্দনপুরা, সিরাজুদৌলা রোড হয়ে আন্দরকিল্লা, মোমিন রোড, জামালখান, গণি বেকারি প্রদক্ষিণ করে পুনরায় চকবাজার, কাতালগঞ্জ, মুরাদপুর হয়ে জায়েমা আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে সমাবেশ, আলোচনা সভা ও জুমার নামাজের পর মুনাজাত শেষে অনুষ্ঠানের সমা্প্তি ঘটবে।

শুক্রবার জুমার নামাজের কারণে জুলুছে সড়ক প্রদক্ষিণ পরিসর ছোট করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। আয়োজকরা আশা করছেন এবার ৩০ লক্ষাধিক নবী প্রেমিক জুলুছে অংশ নেবেন।

মতামত