টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে বিএনপির সম্মেলনে হামলা, ভাইস চেয়ারম্যানসহ আহত ১২

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই  প্রতিনিধি

Mirsarai-Hamla-Newsচট্টগ্রাম, ১৮ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস): মিরসরাইয়ের ৩ নম্বর জোরারগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সম্মেলনে যুবলীগের হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান (সাময়িক বরখাস্তকৃত) মাঈন উদ্দিন মাহমুদসহ কমপক্ষে বিএনপির ১২ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের গনি মেম্বার বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর আহতদের মধ্যে ৬ নম্বর ইছাখালী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক আমান উল্লাহ আমান ও মায়ানী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সোয়েব হাসানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা বিএনপির আহবায়ক (একাংশ) এম আলা উদ্দিন জানান, ‘শান্তিপূর্ণভাবে বিকেল চারটার দিকে ইউনিয়ন বিএনপির সম্মেলন শুরু করেন। সম্মেলন শেষের এক পর্যায়ে যুবলীগ নেতা শহীদের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী তাদের অনুষ্ঠানে হামলা চালায়। এতে আমান, সোয়েব, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাইন উদ্দিন মাহমুদসহ ১২ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। আহদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সোয়েব ও আমানকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’ এছাড়া বিএনপি নেতা রাজিবকে অপহরণ করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। পরে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণ দিয়ে তাকে উদ্ধার করা হয়।

মিরসরাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাঈন উদ্দিন মাহমুদ জানান, জোরারগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির সম্মেলন শেষের এক পর্যায়ে যুবলীগ নাম ধারী সন্ত্রাসী হামলা চালায়। হামলায় তিনিসহ কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছে।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মোস্তফা মানিক বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনা শুনিনি।

জোরারগঞ্জ থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই বিপুল চন্দ্র দেবনাথ বলেন, হামলার বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। তবে বিষয়টি শুনে একটি মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত