টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পৌরসভা নির্বাচন: চট্টগ্রামের ৬০ ভাগ কেন্দ্রই অধিক ঝুঁকিপূর্ণ

চট্টগ্রাম, ১৯ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস): চট্টগ্রামে দশ পৌরসভার কমবেশী সব ভোটকেন্দ্রই ঝুকিঁপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করছে প্রশাসন। ১৩৩টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৬০ শতাংশ কেন্দ্রই অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। বাকি ২৫ শতাংশ কেন্দ্র মধ্যম এবং ১৫ শতাংশ কেন্দ্রকে কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

চট্টগ্রাম জেলার সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ ও পৌরসভার নির্বাচন অফিসের নির্ভরযোগ্য সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। ১০টি পৌরসভায় মোট ১৩৩টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে বারৈয়ারহাটে- ৯টি, মীরসরায়ে-৯টি, সন্দ্বীপে ১৫টি, সীতাকুন্ডে ১৩টি, রাউজানে ১৯টি, রাঙ্গুনীয়ায় ১১টি, পটিয়ায় ১৮টি, চন্দনাইশে ১৬টি, সাতকানিয়ায় ১২টি ও বাশঁখালিতে ১১টি কেন্দ্র রয়েছে।

মীরসরাইয়ে ৯টি ভোট কেন্দ্রের সবগুলোই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। এখানে ভোটার রয়েছে ১১ হাজার ৬৫ জন। একই উপজেলার অপর পৌরসভা বারৈয়ারহাটে ৯টি কেন্দ্রে বুথ রয়েছে ২০টি। ভোটার রয়েছে ৭ হাজার ৫৭২ জন। প্রার্থী হয়েছেন ৪ জন। সহকারী রিটার্নিং অফিসার তোফায়েল হোসেন বলেন, দুই পৌরসভার সবক’টি কেন্দ্রকে প্রাথমিকভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। চন্দনাইশে ১৬টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৯টি অধিক, ৪টি মধ্যম এবং ২টি কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ১৬ কেন্দ্রে বুথ থাকবে ৮৩টি। এখানে ২৫ হাজার ৫৬০ জন ভোটার রয়েছে। রাউজান পৌরসভায় ১৯টি কেন্দ্রে বুথ থাকবে ১৩০টি। এ পৌরসভায় ৪৫ হাজার ৯৪ জন ভোটার রয়েছে। রাউজান থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, এখন পর্যন্ত এখানে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত হয়নি। তবে কতটি হতে পারে সেটির কাজ চলছে। আজ-কালকের মধ্যে তালিকা তৈরি করা হবে। সন্দ্বীপ পৌরসভায় ১৫টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে প্রাথমিকভাবে সবকটিকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছেন সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. শহিদ হোসেন। এখানে ২৭ হাজার ৮৪৮ জন ভোটার রয়েছে। বুথ রয়েছে ৯৮টি। পটিয়ায় ১৮টি কেন্দ্রে বুথ রয়েছে ১১৬টি। ভোটার রয়েছে ৩৪ হাজার ৫১২ জন। এখানে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন ৫ জন। এ উপজেলার সহকারী রিটার্নিং অফিসার সৈয়দ আবু সাইদ বলেন, পটিয়া পৌরসভায় ১৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ৯টি অধিক, ৫টি মধ্যম ও ৪টি কেন্দ্র কম ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ।

সীতাকুন্ডে ১৩টি কেন্দ্রে বুথ রয়েছে ৯০ টি। ভোটার রয়েছে ৩০ হাজার ৭০২ জন। সীতাকুন্ড পৌরসভার রিটার্নিং অফিসার মো. মাহবুবুল কবির বলেন, প্রাথমিকভাবে সবক’টি ভোটকেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এখন পর্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের তালিকা জমা দেয়নি। রাঙ্গুনিয়া পৌরসভায় ১১টি কেন্দ্রে ৬৯টি বুথে ভোট গ্রহণ হবে। এ পৌরসভায় ভোটার রয়েছে ২২ হাজার ৪৮৯জন। প্রাথমিকভাবে সবক’টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে থানা পুলিশ চিহ্নিত করেছে। সাতকানিয়ায় ১২টি কেন্দ্রের মধ্যে ৯৩টি বুথে ভোট গ্রহণ হবে। এতে মোট ভোটার রয়েছে ৩২ হাজার ৭৯৩ জন। এ পৌরসভায় কমবেশী প্রায় সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা রিটার্নিং অফিসার মুহাম্মদ আশরাফুল আলম। বাঁশখালী পৌরসভায় ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে বুথ রয়েছে ৬৫টি। ভোটার রয়েছে ২৩ হাজার ৭৯৩ জন। এ পৌরসভায় সবক’টি ভোট কেন্দ্রকে প্রাথমিকভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে থানা পুলিশ। আরো জানা গেছে, ১০ পৌরসভায় মোট মেয়র প্রার্থী হচ্ছে ৩৪ জন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর হচ্ছে ৭৭ জন ও সাধারণ কাউন্সিলর হচ্ছে ৩৩৮ জন।

মতামত