টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জঙ্গিবাদবিরোধী ফতোয়ার সিদ্ধান্ত আলেমদের

User comments

চট্টগ্রাম, ১৭ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):  ইসলাম কখনও জঙ্গিবাদ সমর্থন করে না। তাই কোরআন ও হাদিসের আলোকে এক লাখ আলেমের স্বাক্ষর নিয়ে সারাদেশে জঙ্গিবাদবিরোধী ফতোয়া দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওলামা একরামরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় পুলিশ সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এসময় আলেমরা বলেন, ‘এ দেশে আইএস নেই। তবে যেখানে উগ্র মতবাদে বিশ্বাসী জামায়াত-শিবিরের মতো সংগঠন রয়েছে সেখানে বাড়তি করে আইএসের কোনও প্রয়োজন নেই। একাত্তরে বাঙালি জাতির ওপর তারা যে নৃশংসতা চালিয়েছে তা আইএস-এর চেয়ে কোনও অংশে কম নয়।’

এদিকে ওলামা একরামদের ফতোয়ার সিদ্ধান্ত সমর্থন করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক একে এম শহীদুল হক। তিনি বলেন, ‘ওলামা একরামদের সহযোগিতায় দেশের অশুভ শক্তি জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে আমরা সক্ষম হব। তাই আমরা তাদের সহযোগিতা কামনা করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এদেশে জঙ্গিবাদের এখনও অঙ্কুর রয়েছে, তবে শেকড় গজাতে পারেনি। তাই এখনই আলেমদের নিয়ে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। মসজিদে খুতবার আগে ইমামরা যেন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে কোরআন-হাদিসের আলোকে বয়ান করেন।’

জঙ্গিবাদের ষড়যন্ত্র বিষয়ে শহীদুল হক বলেন, ‘এ দেশকে নিয়ে অনেকেই ষড়যন্ত্র করেছে। একসময় বৈজ্ঞানিক সমর্থনতন্ত্রের কথা বলে মেজর জলিলরা সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষদেরকে ভুল বুঝিয়ে বিভ্রান্তি করার চেষ্টা করেছিল। তবে পরবর্তীতে তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরে হাফেজজির হুজুরের মুরিদ হন।’

এ ছাড়া কওমি মাদ্রাসারা জঙ্গিবাদ বিষয়ে শহীদুল হক বলেন, ‘কওমি মাদ্রাসা জঙ্গির সঙ্গে জড়িত আমি তা বিশ্বাস করি না। জঙ্গি কার্যক্রমে যারা ধরা পড়েছেন তারা বেশিরভাগ জামায়াত-শিবিরের লোকজন। জঙ্গি নির্মূলে দেশের বিভিন্ন মসজিদ ও মাদ্রাসার কমিটির দিকে পুলিশদের সতর্ক থাকতে বলেছেন পুলিশের মহা পরিদর্শক।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যাডিশনাল আইজিবি মোখলেছুর রহমান, পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলামসহ প্রমুখ।

এ ছাড়া ষোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম মওলানা ফরিদউদ্দিনসহ অনেক আলেমরা উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত