টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে তরুনীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গনধর্ষণ, আটক ১

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ১৪ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):  মিরসরাইয়ে এক তরুণীকে (১৮) জোরপূর্বক ঘর থেকে গহীন পাহাড়ে তুলে নিয়ে গনধর্ষণ করেছে বখাটেরা। রবিবার (১৩ ডিসেম্বর) রাত আনুমানিক ৯টার সময় উপজেলার দক্ষিণ ওয়াহেদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় লোকজন পাহাড় থেকে ওই তরুণীকে উদ্ধার করে পুলিশের হেফাজতে দেয়। এসময় ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আবু নাথ নামে এক বখাটেকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে স্থানীয়রা।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী সাংবাদিকের কাছে বলেন, রবিবার রাতে আমি ঘুমিয়ে পড়ি। রাত আনুমানিক ৯টায় সময় স্থানীয় সাধন নাথের ছেলে শুভ নাথ (২০), হেমন্ত নাথের ছেলে আবু নাথ (২৩) ও ওবায়দুল হকের ছেলে ইসমাঈল হোসেন বাছা দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে আমাকে জোর পূর্বক পাহাড়ে নিয়ে যায়। পাহাড়ে নিয়ে যাবার সময় তাদের সাথে কামাল উদ্দিনের ছেলে সাইফুল ও আরেকজন বখাটে তাদের সাথে যোগ দেয়। তারা পালাক্রমে আমাকে ধর্ষন করে। আমি চিনে যাওযায় আমাকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করে তারা। পরে লোকজনের চিৎকার শুনে তারা আমাকে রেখে পালিয়ে যায়।

ওই তরুণীর ভাই আলা উদ্দিন জানান, আমার নিজস্ব বসতভিটা না থাকায় গত ১০ বছর ধরে ওয়াহেদপুর এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে সরকারী জায়গায় বসতঘর নির্মাণ করে বসবাস করছি। রবিবার সন্ধ্যায় আমি, আমার মা ও বোন ঘুমিয়ে পড়ি। রাত আনুমানিক ৯ টায় সময় স্থানীয় বখাটে শুভ, আবু ও বাছা জোরপর্বক ঘরে প্রবেশ করে আমি আমার মা নুরজাহান বেগম (৬০) ও আমার ৩ বছরের মেয়ে রুনাকে রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে। এসময় তারা (বখাটেরা) তাদের মুখে টেপ লাগিয়ে আমার বোনকে টেনে হিঁচড়ে পূর্বদেিক গহীন পাহাড়ে নিয়ে যায়। পরে আমি কোন মতে বাঁধা খুলে চিৎকার করলে এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে তাদের পাহাড়ে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে আহত অবস্থায় আমার বোনকে উদ্ধার করলেও বখাটেরা পালিয়ে যায়। পরে লোকজন আবুকে ধরে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। এসব কথা বলার সময় তিনি ভেঙ্গে পড়েন। ধর্ষনের ঘটনায় মিরসরাই থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ এমকে ভূঁইয়া বলেন, আমরা ভিকটিমকে মেডিক্যাল চেকআপ করার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) পাঠাবো। মেডিক্যাল রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। ধর্ষনের অভিযোগে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত