টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ডুবে না মরে প্রশিক্ষণ নিয়ে বৈধ পথে বিদেশ যান

probashi_kolyanচট্টগ্রাম, ১২ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস): অবৈধভাবে সাগর দিয়ে বিদেশে যাওয়ার চেষ্টা করে ডুবে না মরে দেশ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বৈধ পথে বিদেশ যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রানালয়ের অধীনে আর্থিক অনুদান ও ক্ষতিপূরণ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব খন্দকার মো. ইফতেখার হায়দার ।

অনুষ্ঠানে সৌদি আরব, ওমান, কাতার, দুবাই ও আবুধাবীতে মৃত্যুবরণকারী চট্টগ্রাম জেলার ৪৯ জন কর্মীর পরিবারের কাছে এক কোটি ৬০ লাখ ৩৫ হাজার ৮৮৯ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়। এ অনুষ্ঠানে ৪৮ পরিবারকে এক কোটি ৩১ লাখ টাকার অনুদান ও এক পরিবারকে ২৯ লাখ ৩৫ হাজার ৮৮৯ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, বিদেশে কেউ মারা গেলে মন্ত্রাণালয়ে খবর দিলে দু মাসের মধ্যে সরকার থেকে অনুদানের টাকা দেয়া হবে।

বর্তমান সরকার দেশের মানুষের কণ্যানে যা যা করা দরকার তাই করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আগে সরকারী অনুদান ও ক্ষতিপূরণ পেতে জুতা ক্ষয় হয়ে যেতো। সরকার বর্তমানে লাশ আসার পর পরিবারকে পয়ত্রিশ হাজার টাকা ও পরে তিন লক্ষ টাকা অনুদানের ব্যবস্থা করে দিয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রামে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে বিদেশে মারা যাওয়া কর্মীদের লাশ পরিবারের কাছে পৌছে দেয়ার জন্য একটি এ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, সরকার আপনাদের যে টাকা দিয়েছে ,তা সাথে সাথে খরচ না করে ব্যাংকে ডিপোজিট করেন। ব্যাংক থেকে মাসিক একটা ইন্টারেস্ট পাবেন। দুই তিনবছরের জন্য জমা রাখলে তা দিগুন হবে যা কাজে লাগাতে পারবেন।

তিনি আরো বলেন, প্রশিক্ষিত কর্মীরা বিদেশে দ্বিগুন বেতনে চাকরি করতে পারে। তাই দেশ থেকে বিদেশে চাকরি করতে যাওয়া পুরুষ ও মহিলা কর্মীদের প্রশিক্ষণের জন্য চট্টগ্রামে দুটি টেনিং সেন্টারে বিভিন্ন কাজের প্রশিক্ষন দেয়ার ব্যবস্থ্ করেছে সরকার।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সচিব খন্দকার মো. ইফতেখার হায়দার বলেন, বিদেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে গিয়ে মারা যাওয়া পরিবারকে আর্থিক অনুদান দিয়ে আসছে সরকার। ২০১৩ সালে ৬৯৪ জনের পরিবারকে ১২ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে এক হাজার ১৭২ পরিবারকে ২৩ কোটি টাকা ও ২০১৫ সালে এ পর্যন্ত ৮৩৯ জনের পরিবারকে প্রায় ২৫ কোটি টাকা আর্থিক অনুদানসহ ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়েছে ।

সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, বিদেশে প্রশিক্ষিত শ্রমিকেরা অনেক বেশি সুবিধা পাওয়ার সাথে সাথে বেতনও বেশি পায়। বিদেশে যাওয়ার আগে তাই বিদেশী ভাষায় ও কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া দরকার।

এ অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও ক্ষতিগ্রস্ত ও অনুদান পাওয়া পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মতামত