টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সালমান বেকসুর খালাস

চট্টগ্রাম, ১০ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):  সালমান কাউকে হত্যা করেননি্- এমন রায় ঘোষণা করে দাবাং তারকাকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন বম্বের উচ্চ আদালত। ফুটপাতে ঘুমন্ত মানুষকে গাড়িচাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগে ১৩ বছর আগে করা এই মামলায় বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করলেন বম্বে হাইকোর্ট।

অবশ্য এর আগে এই মামলায় সালমানকে দোষী সাব্যস্ত করে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন বম্বের দায়রা আদালত। সে রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সালমান হাইকোর্টে আপিল করেন। হাইকোর্ট নিম্ন আদালতের রায়ের দিনই সাজা স্থগিত রেখে সালমানের জামিন মঞ্জুর করেছিলেন।

দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ রায় ঘোষণা করেন আদালত। রায়ে আদালত বলেন, কাউকে হত্যা করেননি সালমান। নিম্ন আদালতের তদন্তেই গোলযোগ ছিল। বিভিন্ন সাক্ষীর পাশাপাশি পুলিশ যে তথ্য-প্রমাণ আদালতে জমা দিয়েছে, তা থেকে স্পষ্ট হয়নি যে সালমান খানই নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

নিম্ন আদালতের রায়ের বিষয়ে হাইকোর্টের পর‌্যবেক্ষণে বলা হয়, আদালত মনে করছে নিম্ম আদালতের ট্রায়ালে ঝামেলা ছিল। সঠিক আইনি পথে মামলা এগোয়নি। পঞ্চনামা ছাড়াই রায় জানিয়েছিল নিম্ন আদালত।

প্রসঙ্গত, দুর্ঘটনার রাতে সালমানের দেহরক্ষী রবীন্দ্র পাতিলের দায়ের করা এফআইআরে সালমান নেশাগ্রস্ত ছিলেন কি না, তা উল্লেখ করেননি। ১ অক্টোবর সালমানের রক্ত পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়ার পর ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে দেওয়া বয়ানে পাতিল জানান, সালমান মদ্যপান করেছিলেন এবং তিনি (পাতিল) এই অভিনেতাকে বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালাতে নিষেধ করেছিলেন।

বিচারপতি তার পর্যবেক্ষণে বলেন, পাতিলের সাক্ষ্য সন্দেহজনক। কারণ, এফআইআর দায়েরের পরে বয়ান রেকর্ডের সময় সালমানের মদ্যপানের কথা বলেছিলেন পাতিল। তাই সাক্ষী হিসেবে পাতিল পুরোপুরি বিশ্বাসযোগ্য নন।

সালমানের সামাজিক অবস্থান বা জনপ্রিয়তা কোনোভাবেই এই মামলাকে প্রভাবিত করেনি বলেও জানান হাইকোর্ট। আদালতে জমা পড়া নথির ভিত্তিতেই এই রায় ঘোষণা করা হয়েছে।

২০০২ সালের ২ সেপ্টেম্বর রাতে বান্দ্রার ফুটপাতে সালমান খানের টয়োটা ল্যান্ডক্রুজার গাড়ির চাপায় নিহত হয় একজন এবং আহত হয় চারজন মানুষ। সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, মদ্যপ অবস্থায় বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাতে গিয়েই এই দুর্ঘটনা। কিন্তু ‘এক থা টাইগার’ তারকার দাবি, দুর্ঘটনার সময় তিনি গাড়ি চালাচ্ছিলেন না।

গাড়িচাপা দিয়ে মানুষ হত্যা মামলায় বেকসুর খালাস পেলেও বিরল প্রজাতির ব্ল্যাকবাক হরিণ শিকারের মামলা ঝুলছে বলিউড সুপারস্টারস সালমানের ওপর।

গাড়িচাপা দিয়ে হত্যা মামলা থেকে খালাস পাওয়ায় হাঁপ ছেড়ে বেঁচেছে বলিউড। কেননা তার ওপর বিভিন্ন ছবিতে বিনিয়োগ হয়ে আছে শত কোটি রুপি। রায় যদি তার পক্ষে না যেত, তাহলে এসব ছবির ভাগ্যবিপরর‌্যয় ঘটার আশঙ্কা ছিল।

এদিকে রায় ঘোষণার পর স্বস্তি ফিরে এসেছে সালমানের স্বজন, বলিউডের শুভাকাঙ্ক্ষীসহ ভক্তদের মধ্যে।

মতামত