টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আনোয়ারায় শিশু শিক্ষার্থীর ‘ক্ষতবিক্ষত’ লাশ উদ্ধার

চট্টগ্রাম, ০৩ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):: চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার একটি ডোবা থেকে নিখোঁজের দুই দিন পর এক স্কুল ছাত্রের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত স্কুল ছাত্র সজল খান সাগর (১২) স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র। সে উপজেলার পশ্চিম বরুমছড়া গ্রামের আব্দুস সবুরের ছেলে।

বুধবার গভীরাতে উপজেলার মোহছেন আউলিয়ার মাজার সংলগ্ন বটতল বাজার এলাকার একটি ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

শিশুটির শরীর ক্ষতবিক্ষত এবং তাকে গলা কেটে খুন করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। তবে পুলিশ বলেছে সুরতহাল রিপোর্ট সম্পন্ন হওয়ার আগ পর্যন্ত তারা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলতে পারবেনা।

লাশ উদ্ধারকারী আনোয়ারা থানার এস আই নাজমুল হোসেন বলেন, স্থানীয় লোকজন খালে লাশটি দেখে সেটা তুলে পাড়ে রাখে। পরে আমাদের খবর দিলে আমরা গিয়ে লাশটি থানায় নিয়ে এসেছি। লাশের সুরতহাল চলছে। সুরতহাল শেষ হলে তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে কিনা কিংবা সে মারা গেছে এ বিষয়ে বলতে পারব।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রতিবেশি দুই কিশোর মুছা ও আরাফাত মিলাদুন্নবীতে যাবার কথা বলে সাগরকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। সাগরের পরিবার মুছা ও আরাফাতকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তারা অসংলগ্ন উত্তর দেয়। পরে তারা পালিয়ে যায়।সাগরের পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি থানায় জানানো হয়। এরপর বুধবার রাতে পুলিশ লাশ পাওয়ার খবর পেয়ে খাল পাড়ে গিয়ে সেটি উদ্ধার করেছে।

বিয়ষটি নিশ্চিত করে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) হাবীবুর রহমান বলেন, ‘গত মঙ্গলবার মিলাদে যাওয়ার কথা বলে সাগরের দুই বন্ধু মুছা ও আরাফাত তাকে ঘর থেকে রাতে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর তার ওই বন্ধুরা ঘরে ফিরলেও সাগর ঘরে ফিরেনি। এরপর তাকে অনেক খোঁজার পরও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে বুধবার গভীরাতে বটতল বাজারের একটি ডোবা থেকে তার গলা কাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনার কারণ উদঘাটন ও কারা জড়িত সেটি পুলিশ খতিয়ে দেখছে।’

তবে পরিবারের পক্ষ থেকে তার ওই দুই বন্ধুকে এ ঘটনার জন্য দায়ী করছে জানিয়েছে পুলিশ জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযানে রয়েছে বলেও জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত