টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘তাজমহল মন্দির ছিল না’

tajmahalচট্টগ্রাম, ০১ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস):: ‘তাজমহল কোনো মন্দির ছিল না’ বলে জানিয়ে দিয়েছে ভারত সরকার। একদল আইনজীবী দাবি করে আসছিলেন একটি মন্দিরের স্থানে তাজমহল নির্মাণ করা হয়।

ভারতের কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রী মহেশ শর্মা জানিয়েছেন, আইনজীবীদের দাবির পক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি। ফলে মন্দির ভেঙে তাজমহল নির্মাণের দাবির কোনো যৌক্তিকতা আর নেই।

গত বছর ওই আইনজীবীদলটি তাজমহল-বিতর্ক নিরসনে একটি মামলা করে। তারা দাবি জানান, তাজমহল হিন্দুদের হাতে ছেড়ে দেওয়া হোক।

১৭ শতাব্দীতে মুঘল সম্রাট শাহজাহান তার স্ত্রীর স্মৃতি রক্ষার্থে আগ্রায় যমুনা নদীর তীরে তাজমহল নির্মাণ করেন। সেই থেকে এটি বিশ্বের দৃষ্টিনন্দন স্থাপত্য হিসেবে বিবেচিত। তাজমহল জাতিসংঘ ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্য। এ ছাড়া বিশ্বের সপ্তাশ্চর্যের একটি এই তাজমহল।

আগ্রার ছয়জন আইনজীবীর একটি দল আদালতে অভিযোগ করেন, তাজমহল ছিল মূলত একটি শিবমন্দির। এটি প্রমাণ করার জন্য তাদের কাছে যথেষ্ট প্রমাণ আছে। তারা তাজমহলকে মন্দির ঘোষণার দাবি জানান। শেষ পর্যন্ত তাদের দাবি খারিজ করে দিল ভারত সরকার।

১৬৫৩ সালে তাজমহলের নির্মাণ কাজ শেষ হয়। সম্রাট শাহজাহান তার স্ত্রী মমতাজ মহলের স্মৃতির উদ্দেশে তাজমহল নির্মাণ করেন। মমতাজ মহল ছিলেন শাহজাহানের তৃতীয় ও প্রিয় স্ত্রী। মমতাজ ১৪ সন্তানের জননী ছিলেন।

১৯৮৩ সালে তাজমহল বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেসকোর স্বীকৃতি পায়। প্রতিদিন গড়ে ১২ হাজার পর্যটক তাজমহল পরিদর্শনে আসেন।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন।

মতামত