টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

দুই বন্ধুর বিপিএল মহারণ দুপুরে

চট্টগ্রাম, ০১ ডিসেম্বর (সিটিজি টাইমস)::  একসঙ্গে বেড়ে ওঠা। একসঙ্গে ক্রিকেট খেলা। জাতীয় দলেও প্রায় একসঙ্গে ঢোকা। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আজ পর্যন্ত যত বড় বড় সাফল্য পেয়েছে, তাতেও তারা সাক্ষী। কিন্তু আজ তারা একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী। বিপিএলের ১৫তম ম্যাচে মঙ্গলবার দুপুর ২টায় সাগরপারের স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ও দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। দুজন বিপিএলে খেলছেন দুই দলে। সাকিবের দল রংপুর রাইডার্স। আর তামিমের দল চিটাগং ভাইকিংস।

আম্পায়ারের সঙ্গে ‘অশোভন’ আচরণ করে সাকিব আল হাসান এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে এ ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছেন। তার অনুপস্থিতিতে শেষ ম্যাচে রংপুর রাইডার্স হেরেছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে। অন্যদিকে তামিম ইকবালের দল শেষ তিন ম্যাচে জয়বঞ্চিত। ভাগ্যদেবী সঙ্গে না থাকায় ছোট-ছোট ভুল করে তামিমের দল এখন খাদের কিনারায়। বিপিএলে আজকের ম্যাচসহ আরো চারটি ম্যাচ খেলবে চিটাগং ভাইকিংস। শেষ চারে জায়গা করে নিতে হলে অন্তত তিনটি ম্যাচ জিততেই হবে তাদের।

দুই দলের প্রথম মুখোমুখিতে তামিমের দল বড় স্কোর করেও হেরেছিল। চরম নাটকীয়তার ম্যাচে শেষ বলে জয় পায় সাকিবের দল। আগে ব্যাটিং করে চিটাগং ভাইকিংস ১৮৭ রান করে। জবাবে রংপুর রাইডার্স শেষ ওভারের শেষ বলে ২ উইকেট হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে।

সে হিসাবে দ্বিতীয়বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে তামিমদের এটি প্রতিশোধ নেওয়ার ম্যাচ। সাকিব আল হাসান ফিরে আসায় স্বাভাবিকভাবেই রংপুর রাইডার্স ম্যাচে এগিয়ে থাকবে। অন্যদিকে গতকাল (সোমবার) হাতের নাগালে থেকেও ম্যাচ হেরে বসেছে চিটাগং। স্বাভাবিকভাবেই আত্মবিশ্বাসের যথেষ্ট ঘাটতি আছে তাদের দলে। একই সঙ্গে সমন্বয়ের অভাবও অনুভব করছেন দলটির অধিনায়ক।

দুই দলের মহারণ দিয়ে বিপিএল শুরু হয়েছিল। চট্টগ্রামেও একই উত্তেজনার অপেক্ষায় ক্রিকেটপ্রেমীরা। চার-ছক্কার এ আসরে শেষ হাসিটা কে হাসতে পারে, সেটাই দেখার বিষয়।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত