টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে পিতা হত্যার অভিযোগে দ্বিতীয় স্ত্রী-পুত্র আটক

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই  প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ২৪ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস):: মিরসরাইয়ে মো. আবুল কালাম আজাদ (৩২) নামে এক ব্যক্তির রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। হত্যার অভিযোগে দ্বিতীয় স্ত্রী সহ সন্তানকে আটক করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ। উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের কলাবাগান এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। সোমবার গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটে। এদিকে স্বামী হত্যার অভিযোগে তার (আবুল কালাম) দ্বিতীয় স্ত্রী মোর্শেদা আকাত (৩৫) ও ছেলে ইকবাল হোসেন (১৫) কে আটক হয়। আবুল কালাম দুর্গাপুর ইউনিয়নের রায়পুর এলাকার এছাক মেম্বার বাড়ীর আবু তাহেরের ছেলে।

জানা গেছে, আবুল কালাম সোমবার রাতে বাড়ি ফিরতে দেরী হবে বলে তার ছোট ভাই মোশারফ হোসেনকে মোবাইল ফোনে জানাই। এরপর গভীর রাত অবদিও আবুল কালাম বাড়ি ফিরেনি। রাত সাড়ে ৪ টার সময় কলাবাগান এলাকার মোর্শেদা আক্তার আবুল কালামের বাড়ি এসে খবর দেয় আবুল কালাম হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে গেছে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। পরে মোশাররফ তার ভাবিকে (আবুল কালামে প্রথম স্ত্রী নাজমা আক্তার) নিয়ে হাসপাতালে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানায় হাসপাতালে নেওয়ার আগে আবুল কালামের মৃত্যু হয়েছে। সকালে হাসপাতাল থেকে তার লাশ বাড়ি নিয়ে আসা হয়। দাফনের জন্য গোসল করানোর সময় দেখা যায় তার গলায় একটি দাগ রয়েছে। গলায় দাগ ছাড়াও তার শরীরের বিভিন্ন অংশে হাতের নখের আচড় ও ঘুষির আঘাত দেখা যায়। এতে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। পরে ঘটনাটি জোরারগঞ্জ থানা পুলিশকে জানালে তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও আবুল কালামের লাশ থানায় নিয়ে যায়। লাশের সুরতাহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতা (চমেক) প্রেরণ করে। আবুল কালামকে পরিকল্পিতভাবে খুন করার অভিযোগে দ্বিতীয় স্ত্রী মোর্শেদা আক্তার (৩৫), ছেলে ইকবাল (১৫) কে বাদী করে তার প্রথম স্ত্রী নাজমা আক্তার জোরারগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা (নং-৪৩) দায়ের করেন।

আবুল কালামের ছোট ভাই মোশারফ হোসেন জানান, ভাইয়া আমাদের কখনো জানায়নি যে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন। সোমবার রাতে ভাইয়ার খবর বলতে এসে মোর্শেদা আক্তার বলেন ভাইয়া তাকে বিয়ে করেছেন।

জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাঈন উদ্দিন জানান, সুরতাহাল করে দেখা যায় আবুল কালামে গলায় দাগ ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চি‎হ্ন রয়েছে। তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় তার স্ত্রী নাজমা আক্তার বাদী হয়ে ২জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা (নং ৪৩) দায়ের করেছেন। আসামীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মতামত