টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পুলিশ প্রহরায় শাহজালালে যাচ্ছে ২০ নারী

2015_11_24_14_45_25_GjB1lQHMLc5nBcA1trOdrryYwka8T3_originalচট্টগ্রাম, ২৪ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস)::নগরীর আকবর শাহ থানার সিটি গেইট এলাকা থেকে আটক ২০ নারীকে পাচারের জন্য জড়ো করা হয়েছিল কিনা তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।  ত‍াদের পুলিশ প্রহরায় ঢাকা শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরে পাঠানো হচ্ছে। একইসঙ্গে আটক হওয়া ট্রাভেল এজেন্সি আলিফ ওভারসিজের মালিক কবির আহমদকেও পুলিশ হেফাজতে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে।

আকবর শাহ থানার ওসি সদীপ কুমার দাশ   জানিয়েছেন, শাহজালাল বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশকে ২০ নারীকে পাচারের সন্দেহে আটকের বিষয়টি ‍জানানো হয়েছে।  তাদের অবৈধভাবে সৌদিআরবে পাঠানো হচ্ছে কিনা সেটা খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে।  অবৈধ হলে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

আজ  দুপুর ১২টার দিকে নগরীর সিটি গেইট এলাকায় শ্যামলী পরিবহনের একটি বাসে অভিযান চালিয়ে ২০ নারী ও ট্রাভেল এজেন্সি মালিককে আটক করা হয়।

পুলিশ সূত্রে ‍জানা গেছে, আটক নারীরা সবাই কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা।  তাদের কক্সবাজার থেকে সোমবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীতে আনা হয়।  হোটেলে রাতযাপনের পর ভোরে তাদের নিয়ে শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল।  রাত আড়াইটায় সৌদিআরবের বিমানে তাদের সিট বুকিং আছে।

আটকের পর তারা জানিয়েছে, গৃহকর্মীর ভিসা নিয়ে তারা সৌদিআরব যাচ্ছিল।  তাদের ভিসার ব্যবস্থা করেছেন আলিফ ওভারসিজের মালিক কবির আহমেদ।

এসময় কবির আহমেদের কাছে ভিসা এবং আনুষাঙ্গিক কাগজপত্র দেখতে চাইলে তিনি অধিকাংশ ভিসার মূল কাগজ পুলিশকে দেখাতে পারেননি।  এতে পুলিশের মধ্যে পাচারের বিষয়ে সন্দেহ সৃষ্টি হয়।

ঘটনা শুনে দুপুর দেড়টার দিকে আকবর শাহ থানায় যান সিএমপি কমিশনার মোহা.আব্দুল জলিল মন্ডল।  তিনি ভিসা এবং আনুষাঙ্গিক কাগজপত্র পর্যালোচনা করে তাদের পুলিশ প্রহরায় ঢাকায় পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মতামত