টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টদের যত্নবান হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

চট্টগ্রাম, ২২ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস): পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সবাইকে তাদের কাজে আরো যত্নবান হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার নিজ কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

এসময় তিনি বলেন, বাংলাদেশ অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে অর্থনৈতিকভাবে একটি স্থিতিশীল পর্যায়ে এসেছে। এই খাতের উন্নয়নে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও আশ্বাস প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকলকে আহ্বান জানাব, বিনিয়োগকারী ও দেশের স্বার্থে নিজেদের কর্মকাণ্ড অধিকতর যত্নের সাথে পরিচালনা করুন। সরকারের সহযোগিতা আপনাদের জন্য অব্যাহত থাকবে।

প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অব ইন্ডিয়া (এসইবিআই) এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা মশিউর রহমান, রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, শিল্পকারখানা ও অবকাঠামো উন্নয়নে প্রয়োজনীয় পুঁজি সংগ্রহে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন সবসময়ই সজাগ থাকবে এবং দূরদৃষ্টি সম্পন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ইতোমধ্যে সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। আমাদের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার মূল লক্ষ্য টেকসই প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিত করা। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজন ব্যাপক বিনিয়োগ। একটি বলিষ্ঠ, জবাবদিহিমূলক ও কার্যকর পুঁজিবাজার শিল্প-কারখানা এবং অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় পুঁজি সংগ্রহে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে ।

তিনি আরো বলেন, শিল্প ও অবকাঠামোসহ অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রবৃদ্ধির গতিধারা ত্বরান্বিত করার জন্য দীর্ঘমেয়াদী অর্থায়নের অন্যতম উৎস পুঁজিবাজার। তাই একটি স্বচ্ছ, জবাবদিহিমূলক, দক্ষ, স্থিতিশীল ও শক্তিশালী পুঁজিবাজার গড়ে তোলার জন্য আমরা সচেষ্ট রয়েছি।

তিনি বলেন, আইনি পরিবর্তন এনে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে শক্তিশালী করা, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় বিভিন্ন কর্মসূচি প্রণয়ন, পুঁজিবাজারের ডিমিউচুয়ালাইজেশন, পুঁজিবাজারের জন্য স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল চালু করা, আর্থিক প্রতিবেদনের স্বচ্ছতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বৃদ্ধির জন্য ফাইনানশিয়াল রিপোর্টিং অ্যাক্ট প্রণয়ন এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে ‘ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ও প্রাইভেট ইক্যুইটি রুলস’ প্রবর্তন করা হয়েছে।

তিনি জানান, বাংলাদেশের পুঁজিবাজারকে আরও উন্নত স্তরে নিতে শিগগিরই কিছু কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিএসইসি চেয়ারম্যান এম খায়রুল হোসেন ও এসইবিআই চেয়ারম্যান ইউকে সিনহা একটি সমঝোতা স্মারকে সই করেন; যার মধ্য দিয়ে দুই দেশের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিভিন্ন বিষয়ে পরস্পরকে সহযোগিতা করবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত