টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাকার মরদেহ প্রতিহতের ঘোষণা চবি ছাত্রলীগের

চট্টগ্রাম, ২০ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস): যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসির দন্ডাদেশ কার্যকরের অপেক্ষায় থাকা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ওরফে সাকা চৌধুরীর মরদেহ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে দিয়ে বহন করে নিয়ে যেতে দেয়া হবেনা বলে ঘোষণা দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। এরআগে সাকার জন্মস্থান রাউজানে দাফন করতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছিলেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও মুক্তিযোদ্ধারা।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আলমগীর টিপু ও সাধারন সম্পাদক ফজলে রাব্বী সুজন সাক্ষরিত গণমাধ্যমকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই ঘোষণা দেয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে সাকার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। পরে রিভিউ আবেদনও খারিজ হওয়ায়, সাকাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা এখন সময়ের ব্যাপার।’

গণমাধ্যম সূত্রে আমরা জানতে পেরেছি, বৃহস্পতিবার দুপুরে সাকার সাথে তার পরিবার সাক্ষাৎ করেছে। সাক্ষাৎ শেষে সাকার স্ত্রী গ্রামের বাড়ি রাউজানে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে সাকাকে দাফন করার প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। কিন্তু তা কোন ভাবেই হতে দেবে না চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। চট্টগ্রামের মাটিতে যুদ্ধাপরাধী সাকাকে মাটি দিতে দেওয়া হবে না। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে দিয়ে যুদ্ধাপরাধীর লাশ পরিবহনের চেষ্টা করা হলে তা প্রতিহত করা হবে।

উল্লেখ্য যে, সাকার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলায় সড়ক পথে যেতে হলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর সামনের চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মহাসড়ক ব্যবহার করতে হয়।

মতামত