টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

যৌন ও প্রজননতন্ত্রের সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রয়োজন সমন্বিত সামাজিক সচেতনতা: চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন

IMG_4853চট্টগ্রাম, ১৯  নভেম্বর (সিটিজি টাইমস): বাংলাদেশে যৌন ও প্রজননতন্ত্রের সংক্রমণ ও এইডস্ প্রতিরোধে প্রয়োজন সমন্বিত সামাজিক সচেতনতা এবং একটি সুসংগঠিত সামাজিক আন্দোলন। ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ, ও জাতীয় পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে সম্পৃক্ত করে এদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে স্ব-স্ব পরিমন্ডলে নেতৃত্ব প্রদান করার মাধ্যমে এ দেশে যৌন ও প্রজননতন্ত্রের সংক্রমণ ও এইডস্ প্রতিরোধ এবং কার্যক্রমের গতিশীলতা বৃদ্ধি প্রয়োজন। গত ১৮ নভেম্বর ২০১৫ ইং তারিখে বেসরকারী সেচ্ছাসেবী সংগঠন মমতা পরিচালিত লিংক আপ প্রকল্পের উদ্যোগে মমতার সদও দপ্তরের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত “ঝুঁকিপূর্ণ যুব জনগোষ্ঠীর প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার” শীর্ষক সভায় প্রধান অতিথি চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বক্তব্যেএই অভিমত ব্যক্ত করেন। মমতার উপ প্রধান নির্বাহী মো: ফারুক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নং ওয়াড এর কাউন্সিলর নাজমুল হক (ডিউক)। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মমতা’র উপপরিচালক অর্থ ইকবাল আল মাহমুদ, উপপরিচালক-এমআইএস সুব্রত বড়ুয়া, প্রকল্প সমন্বয়কারী শ্যামল কান্তি দাশ, বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা: আশরাফ, সমাজ কর্মী সুজিত দাশ ।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে আরোবলেন, আমাদের দেশের অধিকাংশ লোক এখনও যৌন ও প্রজনন তন্ত্রের সমস্যাসমূহ গোপন রাখতে চায়। তারা কোন ভাল চিকিৎসকের পরামর্শ নেয় না। প্রতিবেশী দেশসহ আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে এইডস্ ভয়াবহ আকারে ছড়িয়ে পড়লেও বাংলাদেশে ধর্মীয় অনুশাসন ও সামাজিক মূল্যবোধর কারণে এইচআইভি সংক্রমণের হার কম হলেও এখনো আশংকা মুক্ত নয়। কেননা নির্দিষ্ট কিছু জনগোষ্টির মধ্যে বিশেষ করে শিরায় মাদক গ্রহনকারী জনগোষ্টির মধ্যে এরোগের প্রকোপ বৃদ্ধির কারণে এদেশে এইড্স এর ঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে। সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে গনসচেতনতা সৃষ্টির করলে এদেশে এইচআইভি/এইডস্ এর ভয়াবহতা এবং যৌন ও প্রজননতন্ত্রের সংক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নাজমুল হক (ডিউক)বলেন, পাশ্চাত্য সংস্কৃতি চর্চার ফলে আমাদের দেশের যুবসমাজ ঝুঁকিপূর্ণ আচরণে অভ্যস্ত হচ্ছে। যার ফলে এইডস সহ বিভিন্ন রকম যৌন ও প্রজনন রোগে দেশের যুবসমাজ আক্রান্ত হচ্ছে। তিনি এক্ষেত্রে নিজে সচেতন থেকে অন্যদের সচেতন করার আহ্বান জানান। তিনি চট্টগ্রামের মাননীয় মেয়র আ.জ.ম. নাসির উদ্দিন এর আহ্বানে সাড়া দিয়ে চট্টগ্রাম শহরকে একটা পরিচ্ছন্ন ও সবুজ নগরী গড়ে তোলার জন্য নগরবাসীর প্রতি সহযোগীতার আহ্বান জানান। মমতার উপ-প্রধান নির্বাহী মো: ফারুক বলেন তার বক্তব্যে মমতার বিভিন্ন কার্যক্রমের উপর আলোকপাত করে বলেন, মমতা অত্র অঞ্চলে গরীব জনগোষ্টির আর্থ-সামাজিক উন্নয়নসহ যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যের সংক্রমণ রোধ ও এইড্স সংক্রমণ প্রতিরোধে সমন্বিত কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। তিনি বলেন মমতা লিংক আপ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় আশি হাজার গার্মেন্টস কর্মীকে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে মমতা প্রায় দুই লক্ষ গার্মেন্টস শ্রমিকের স্বাস্থ্য অধিকার সুরক্ষা ও জীবনমান উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত