টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

টি-টোয়েন্টি মিশনে বিকেলে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম, ১৩  নভেম্বর (সিটিজি টাইমস): জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে উড়ছে বাংলাদেশ। এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজের অপেক্ষা। দাপট ধরে রেখে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চান মাশরাফিরা।

দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটি শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বিকেল ৫টায় শুরু হবে। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ও গাজী টেলিভিশন।

দুই ম্যাচের এই সিরিজ দিয়ে দুই দলই আগামী বছর ভারতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে নিজেদের গুছিয়ে নেয়ার চিন্তা করছে। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির চিন্তা, টিম কম্বিনেশন ঠিক করা।

যদিও এই সিরিজে নেই সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসান। তাদের পরিবর্তে যারা দলে আসবেন, তারাও নিজেদের প্রমাণ করার সযোগ পাচ্ছেন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এখনো প্রায় চার মাস দেরি থাকলেও এটাই গুছিয়ে নেয়ার ভালো সময় বলে মনে করেন মাশরাফি।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে কোনো ম্যাচেই প্রতিযোগিতার সুযোগ দেয়নি স্বাগতিকরা। দাপটের সঙ্গে জিতে নিয়েছে সিরিজের সবগুলো ম্যাচ।

সেই হিসেবে টি-টোয়েন্টিতেও এগিয়ে টাইগাররা। তবে সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের ক্রিকেটে বাংলাদেশ প্রত্যাশিতভাবে ভালো দল হয়ে উঠতে পারেনি।

তার ওপর টি-টোয়েন্টিতে বড় দল বা ছোট দলকে আলাদা করা কঠিন। পুরো বছরটা বাংলাদেশ যেভাবে খেলছে, তাতে জিম্বাবুয়ে তো বাংলাদেশের কাছে ছোট দলই।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত খেলেছে মাত্র তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। এর দুটিতে জিতেছে, হার এক ম্যাচে। বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টিতে এখন পর্যন্ত ৪৪ ম্যাচে জিতেছে মাত্র ১২টিতে। র‌্যাংকিংয়ে আফগানিস্তানেরও নীচে বাংলাদেশ, ১০ম স্থানে।

এখন এই ফরম্যাটের সিরিজে জিম্বাবুয়েকে দাপটের সঙ্গে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতিটাও সেরে রাখতে চায় বাংলাদেশ।

শেষ ওয়ানডে ম্যাচের দল নিয়েই শুক্রবার মাঠে নামতে পারে স্বাগতিকরা। সে ক্ষেত্রে এনামুল হক, জুবায়ের হোসেন ও কামরুল ইসলাম রাব্বিকে একাদশের বাইরেই থাকতে হতে পারে।

বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুটো টি-টোয়েন্টি ম্যাচই আমাদের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তারওপর টি-টোয়েন্টি হচ্ছে ভিন্ন ফরম্যাটের এক খেলা।

এখানে ছোট বা বড় দল বলেও কিছু নেই। তবে দুই ম্যাচের এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে আমরা আমাদের দলের সেরা একটা কম্বিনেশন ঠিক করে ফেলতে চাই।’

টি-টোয়েন্টি পরিসংখ্যানেও এগিয়ে বাংলাদেশ। সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটের ম্যাচে দু’দল মুখোমুখি হয়েছে মোট তিনবার। এর মধ্যে ২টি জয় বাংলাদেশের। বাকিটি জিম্বাবুয়ের। আবার টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়েও বাংলাদেশের বেশ পেছনে রয়েছে সফরকারীরা। তাদের অবস্থান ১৪তম।

অপরদিকে টানা তিন ম্যাচে হারের পরও নিজেদের আত্মবিশ্বাসী দল হিসেবে দেখছেন সফরকারী দলের অধিনায়ক এলটন চিগুম্বুরা। ওয়ানডে সিরিজকে অতীতের খাতায় ফেলে দিয়ে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ নিয়েই ভাবছেন তারা।

এ প্রসঙ্গে অতিথি দলের অধিনায়ক চিগম্বুরা বলেন, ‘ওয়ানডে সিরিজ এখন অতীত। এটা নিয়ে আর বলার কিছু নেই। আমাদের দৃষ্টি শুক্রবারের ম্যাচে। প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ভালো খেলাটাই এখন আমাদের নিশ্চিত করতে হবে।’

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন ও আরাফাত সানি।

মতামত