টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মানিকছড়িতে ইমামের বিরুদ্ধে মামলা

জুমার খুতবায় জঙ্গী ও শহীদের প্রকৃত সংখ্যার অপব্যাখ্যার অভিযোগে

আবদুল মান্নান
মানিকছড়ি প্রতিনিধি 

Anowerচট্টগ্রাম, ১২ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস):  ইসলামী ফাউন্ডেশন’র গণ শিক্ষা প্রকল্পের উদ্যোগে দেশব্যাপি মসজিদে জুমার খুতবায় ‘জঙ্গী বিরোধী’ বয়ানে জঙ্গীর অপব্যাখ্যা এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত ৩০ লক্ষ শহীদকে ৩ লক্ষ বলে বক্তব্য দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির অভিযোগে মানিকছড়িতে ‘উপজেলা মডেল কেয়ারটেকার ও মসজিদের ইমাম এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দেশব্যাপি মসজিদে মসজিদে জুমার খুতবায় জঙ্গী ও সন্ত্রাস বিরোধী বক্তব্যের জন্য ‘ইসলামী ফাউন্ডেশন এর গণশিক্ষা প্রকল্পের আওতায় পরিচালিত উপজেলা মডেল কেয়ারটেকার’গণের মাধ্যমে তৃণমূলে কাজ করছে। ফলে গত ৬ নভেম্বর মানিকছড়ি উপজেলা গণশিক্ষা প্রকল্পের মডেল কেয়ারটেকার ও সড়ক ও জনপদ মসজিদের পেশ ইমাম এবং যুবলীগ নেতা মো. আবুল হাশেম এর ছোট ভাই মুফতী মো. আনোয়ার হোসেন জুমার খুতবায় জঙ্গী ও সন্ত্রাসী বিরোধী বক্তব্যে দেশ ব্যাপি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংঘর্ষকে জঙ্গীর কাজ আখ্যা দিয়ে এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লক্ষ শহীদকে মিথ্যা উল্লেখ করে বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রকৃতপক্ষে ৩ লক্ষ লোক শহীদ হয়েছে এমন বক্তব্য রাখায় মুসল্লীরা উত্তেজিত হয়ে এর প্রতিবাদ জানায়। পরে খবরটি জড়িয়ে পড়লে ইসলামী ফাউন্ডেশন পরিচালিত মসজিদের ইমামগণ বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনের নজরে আনেন এবং ওই মুফতীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান। ফলে গত ১০ নভেম্বর জেলা সমন্বয় সভায় বিষয়টি উপস্থাপন হলে প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়। যার কারণে গতকাল ১২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আতিউল ইসলাম বাদী হয়ে ওই ইমামের বিরুদ্ধে ঘটনার বিবরণ উল্লেখ্য করে মানিকছড়ি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২ তারিখ-১২/১১/২০১৫খ্রি.।

এ প্রসঙ্গে মানিকছড়ি থানার ও.সি মো. শফিকুল ইসলাম এ প্রতিবেদকে জানান, জুমার খুতবায় জঙ্গী ও সন্ত্রাস বিরোধী বয়ানে জঙ্গী ও স্বাধীনতা যুদ্ধে ত্রিশ লক্ষ শহীদের সংখ্যাকে তিন লক্ষ উল্লেখ্য করে বক্তব্য রাখায় জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়। ফলে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বাদী হয়ে আবেদন করায় মামলাটি আমলে নেয়া হয়েছে। এখন বিষয়টি তদন্তপূর্বক অভিযুক্ত ইমামের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মতামত