টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করতে চায় টাইগাররা

spচট্টগ্রাম, ১১ নভেম্বর (সিটিজি টাইমস):  দাপটের সঙ্গেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে ইতোমধ্যেই সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে টাইগাররা। তাই এবার জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দেয়ার হাতছানি বাংলাদেশের সামনে। তৃতীয়বারের মতো জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার লক্ষ্য নিয়েই জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে আজ বেলা ১টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

১১তম বিশ্বকাপের আগে দেশের মাটিতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। এরপর বিশ্বকাপে হৃদয় রাঙানো পারফরমেন্স প্রদর্শন করে বিশ্ব ক্রিকেটে সুনাম কুড়িয়েছে টাইগাররা। সেই সুনামের পাল্লা আরো ভারী হয়েছে, পরবর্তীতে বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সেরা তিন দলকে হারের স্বাদ দিয়ে।

বিশ্বকাপের পরই দেশের মাটিতে পাকিস্তান, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। তিনটি সিরিজেই হারের লজ্জা নিয়ে দেশে ফিরেছিল তারা। পাকিস্তানকে ৩-০, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২-১ ব্যবধানে হারায় মাশরাফি বাহিনী। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের যেখানে হারাতে খুব বেশি কষ্ট করতে হয়নি, সেখানে জিম্বাবুয়ের মতো দলকে হারাতে কি বাঘের মতো গর্জনের প্রয়োজন পড়ে কি!!

না, বাঘের মতো গর্জন করতে হয়নি বাংলাদেশকে। কারণ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজেও পারফরমেন্সের ফুলঝুড়ি ফুটিয়েছেন মুশফিক-সাকিব-ইমরুল-মাশরাফি-মুস্তাফিজুর-আল আমিনরা। তাতেই এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের।

সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায়, জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের প্রবল সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে বাংলাদেশের সামনে। তৃতীয়বারের মতো জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের সুযোগ পেল টাইগাররা। এর আগে তিন ম্যাচের সিরিজে কখনো না পারলেও, পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ঠিকই সাফল্যকে সঙ্গী করেছে বাংলাদেশ। ২০০৬ সালে প্রথম এবং বিশ্বকাপের আগে দ্বিতীয়বার।

তবে হোয়াইটওয়াশের চিন্তা মাথায় না নিয়ে ম্যাচ জয়ের আকাঙ্ক্ষাটাই অনেক বেশি বাংলাদেশের। দ্বিতীয় ম্যাচের পর টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির কণ্ঠে তেমনই ইঙ্গিত, ‘এই জার্সি গায়ে দিয়ে টানা ১’শ ম্যাচ জিতলেও, আমরা পরের ম্যাচটা জিততে চাইবো।’ অর্থাৎ ম্যাচ জয়ের প্রবল ইচ্ছাটা এখন কতটা শক্তপোক্ত বাংলাদেশের।

দলের অধিনায়কের এমন বক্তব্যের পর খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাসী না হয়ে উপায় আছে কি!! উপায় না থাকারই কথা। তাই জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্য পূরণের জন্যই তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে খেলতে নামবে বাংলাদেশ এমনটা বলাই যায়।

বাংলাদেশ স্কোয়াড : মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন দাস কুমার, ইমরুল কায়েস, মুস্তাফিজুর রহমান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, আরাফাত সানি, জুবায়ের হোসেন, আল-আমিন হোসেন, এনামুল হক বিজয় ও কামরুল ইসলাম রাব্বি।

জিম্বাবুয়ে স্কোয়াড : এলটন চিগুম্বুরা (অধিনায়ক), সিকান্দার রাজা, রেজিস চাকাব, চামু চিবাবা, টেন্ডাই চিসোরো, গ্রায়েম ক্রেমার, ক্রেইগ আরভিন, লুক জঙ্গবে, নেভিল মাদিভা, ওয়েলিংটস মাসাকাদজা, রিচমন্ড মুতুম্বামি, তরাই মুজারাবানি, জন নিউম্বু, তিনাশে পেনিয়াঙ্গারা, ম্যালকম ওয়ালার, সিন উইলিয়ামস।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত