টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

দেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্র চলছে

চট্টগ্রাম, ০৮  নভেম্বর (সিটিজি টাইমস):  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একটি বিশেষ গোষ্ঠী বাংলাদেশকে সিরিয়া, মিসর, পাকিস্তান, লিবিয়া, আফগানিস্তানের কাতারে নামিয়ে আনতে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে গুপ্ত হত্যার মাধ্যমে তারা দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করছে। তারা স্বীকার করতে চায় বাংলাদেশে আইএস আছে, জঙ্গি আছে। আর এটা স্বীকার করানো গেলে এদেশে হামলা করতে পারে। তাদের এই ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে দেশবাসীকে সচেতন থাকতে হবে।

বেলা সাড়ে ১১টায় গণভবনে নেদাল্যান্ডস সফর নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে একটি শান্তিপূর্ণ দেশ। এক সংশয় এখানে জঙ্গিদের উত্থান হয়েছিল। কিন্তু আমরা কঠোর হস্তে তাদের দমন করেছি।

সংবাদ সম্মেলনে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী সফর সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করেন। এরপর সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার দেশে ডিজিটাল করেছেন। এখন এর সুবিধা নিয়ে অনেক বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাচ্ছে। তাই প্রয়োজনে কিছুদিনের জন্য হলেও এ সুযোগ বন্ধ করে দিয়ে সন্ত্রাসীদের লিঙ্কগুলো বের করা হতে পারে।

তবে এজন্য ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হবে কিনা তা জানাননি প্রধানমন্ত্রী।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গত সংপ্তাহে এক বিবৃতিতে সংকট নিরসনে জাতীয় সংলাপের যে ডাক দিয়েছেন সে ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি তা নাকচ করে দেন এবং বলেন, ‘ওনার কাছে গেলেই তো পোড়া মানুষের গন্ধ পাব।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আবার চিরুনি অভিযান (কম্বিং অপারেশন) শুরু করেছি।’

তিনদিনের সফর শেষে শুক্রবার দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের আমন্ত্রণে গত ৩ নভেম্বর এই সফরে গিয়েছিলেন তিনি।

সফরে ইউরোপের দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের চারটি চুক্তি সই হয়েছে। চুক্তি সইয়ের আগে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন শেখ হাসিনা। অন্যপক্ষের নেতৃত্বে ছিলেন ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট।

ওই বৈঠকের পর এক যুক্ত বিবৃতিতে বলা হয়, জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং বিনিয়োগ ও বাণিজ্য বৃদ্ধিতে ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা’ বাস্তবায়নে একসঙ্গে কাজ করতে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডস একমত হয়েছে।

মতামত