টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গণতন্ত্রের শিকড় গভীরে নিতেই দলীয় প্রতীকে স্থানীয় নির্বাচন

চট্টগ্রাম, ০৭  নভেম্বর (সিটিজি টাইমস): গণতন্ত্রকে তৃণমূল পর্যায়ে আরও শক্তিশালী করতেই সরকার স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয় প্রতীকে করার ব্যবস্থা করেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি এর ফলে গণতন্ত্র শুধু শক্তিশালীই হবে না, এর শিকড় আরও গভীরে যাবে।

শনিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ৪৪তম জাতীয় সমবায় দিবস-২০১৫ উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। গণতন্ত্রকে শক্তিশালী এবং প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতেই আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার কাজ করছে।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, স্থানীয় সরকার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এ উদ্যোগ যুগান্তকারী। দলের মনোনয়নের পাশাপাশি নির্দলীয় প্রার্থীরাও এ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। এজন্যই গণতান্ত্রিক চর্চাকে কিভাবে বেগবান করা যায় সেই চেষ্টা এবং উদ্যোগ প্রতিনিয়তই নেয় আওয়ামী লীগ।

মন্ত্রী বলেন, পৌরসভা নির্বাচনের পর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ক্ষেত্রেও একইভাবে দলীয় মনোনয়ন, দলীয় প্রতীক ব্যবহার করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকবে। পরবর্তীতে সিটি করপোরেশন, জেলা পরিষদ ও উপজেলা নির্বাচনেও একই ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে। এ কারণেই জনগণের ক্ষমতা জনগণকে ফিরিয়ে দিতে স্থানীয় সরকারকে আরও শক্তিশালী করার উদ্যোগ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার জনগণকে তাদের রাজনীতি করার মৌলিক অধিকার প্রয়োগ করার জন্য নিজস্ব দলের পছন্দসই লোককে ভোট দেয়ার সুযোগ করে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। আশা করি এই উদ্যোগ দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। গণতন্ত্রের সুফল তৃণমূল পর্যায়ে আরও বেশি পৌঁছবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব এম এ কাদের সরকার।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, সমবায় অধিদপ্তরের নিবন্ধক ও মহাপরিচালক মো. মফিজুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে ১০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় সমবায় পুরস্কার-২০১৩ দেয়া হয়্।

যেসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সমবায় পুরস্কার দেওয়া হয়েছে তারা হলেন-পাবনার আমিরুল ইসলাম, কুমিল্লার এস এম তোফায়েল আহম্মদ, মেহেরপুরের খুদিরাম হালদার, মিরপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধা আমীর হোসেন মোল্লা, কক্সবাজারের রামু উপজেলার সোনাইছড়ি খাল পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি, বরিশালের নলচিড়া কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিমিটেড, গোপালগঞ্জের দক্ষিণ জলিরপাড়া দোলন চাঁপা মহিলা সমবায় সমিতি লিমিটেড, নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলা মহিলা বিত্তহীন কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি লিমিটেড, দিনাজপুরের ইউনাইটেড কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড, সিলেট বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মচারী ভোগ্যপণ্য সরবরাহ সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লিমিটেড।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত