টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

খালেদাই গুপ্তহত্যায় জড়িত, দাবি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

চট্টগ্রাম, ০৩  নভেম্বর (সিটিজি টাইমস):: খালেদা জিয়া লন্ডনে বসে দেশে গুপ্তহত্যা পরিচালনা করছেন বলে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যকে যথার্থ ও সঠিক বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

সচিবালয়ে মঙ্গলবার নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

সোমবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জেল হত্যা দিবসের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে ব্যর্থ হয়ে খালেদা জিয়া লন্ডনে বসে এখন লেখক, প্রকাশক ও বিদেশিদের টার্গেট করে গুপ্তহত্যায় নেমেছেন। কারণ, সম্প্রতি সংঘটিত বিভিন্ন হত্যাকাণ্ডের পর যাদের আটক করা হয়েছে, তাদের প্রত্যেকেই অতীত জীবনে বিএনপি অথবা ছাত্রশিবিরের কর্মী ছিলেন।’

প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের পক্ষে সরকারের কাছে তথ্য আছে কিনা এবং এ বক্তব্য তদন্তকাজে প্রভাব ফেলবে কিনা- জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যা বলেছেন যথার্থ বলেছেন। উনার কাছে নিশ্চয়ই তথ্য আছে, উনি তথ্যভিত্তিক কথা বলেছেন। প্রকার-প্রকারান্তরে আপনাদের কাছেও তথ্য আছে। তাই প্রধানমন্ত্রী যা বলেছেন যথার্থ বলেছেন, সঠিক বলেছেন। আমাদের তদন্তের মাধ্যমে এটা বের হয়ে আসবে।’

বিএনপি নেত্রী লন্ডন থেকে দেশে ফিরলে তাকে এ মামলায় আসামি করা হবে কিনা- জানতে চাইলে কামাল বলেন, ‘যারা প্রকৃত দোষী, যারা ঘটনা ঘটিয়েছেন কিংবা মদদ দিয়েছেন কিংবা পরিকল্পনা করেছেন কিংবা আর্থিক সহযোগিতা করেছেন সবাইকে আমরা খুঁজে বের করছি। যারাই জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধেই আমরা ব্যবস্থা নেব। এখন লন্ডনে বসেই করুক কিংবা অন্য কোনো জায়গায় বসে করুক।’

‘একের পর এক তারাই হত্যাকাণ্ডগুলো সংঘটিত করছে। তারা মনে করে, অন্য দেশের মানুষ তারা,’ বলেন আসাদুজ্জামান কামাল।

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি, যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে, যারা জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেছিল সবাই এক। তারা পর্যায়ক্রমে নাম চেঞ্জ করে একেকবার একেক নামে আত্মপ্রকাশের চেষ্টা করছে।’

‘জেএমবি, হরকাতুল জিহাদ, আনসার আল ইসলাম কিংবা আল-কায়েদা বাংলাদেশ, এই সবগুলোর সুতো ধরে যদি টান দেই তবে এক জায়গায়ই আসে- সেই জামায়াত-শিবির।

তারা রগ কাটা থেকে শুরু করেছিল, এখন তারা গলা কাটছে। এগুলোর সবই আমরা তদন্ত করে বের করব ইনশাআল্লাহ।’

‘সত্য উদঘাটন করে আমরা সবাইকে জানাব। একটু সময় লাগবেই, সময় দিতে হবে,’ বলেন মন্ত্রী।

জামায়াত নিষিদ্ধ করা হবে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। যে পর্যন্ত না মামলা সুরাহা হবে ততদিন কিছু বলতে পারব না।’

একের পর এক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ব্যর্থ কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘না, আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের মূল হোতাকে আমরা ধরেছিলাম। এ দলের যারা আত্মপ্রকাশের চেষ্টা করেছিল তাদের আমরা ধরে ফেলেছি। নতুন করে যারা আত্মপ্রকাশের চেষ্টা করছে তাদেরও আমরা ধরছি। আমরা ছাড়ছি না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অনেক কাজ করছে। আমাদের আইনশৃঙ্খলা ভাল।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘প্রকাশকদের ওপর দুই হামলায় সোমবার দুটি মামলা হয়েছে। সর্বোচ্চ পর্যায়ে এর তদন্ত হবে এবং হচ্ছে। অভিযোগগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

শনিবার শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে জাগৃতি প্রকাশনীর মালিক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। একই দিন দুপুরে লালমাটিয়ার শুদ্ধস্বরের প্রকাশক আহমেদুর রশিদ টুটুল, লেখক ও ব্লগার রণদীপম বসু ও তারেক রহিম দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হন।

মতামত