টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাঙ্গুনিয়ায় গভীর রাতে আসামী ধরতে গিয়ে অবরুদ্ধ পুলিশ

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ৩১ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস)::  চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পারুয়া ইউনিয়নের পারুয়া গ্রামে কথিত আসামী ধরতে গিয়ে অবরুদ্ধ হয়েছেন পুলিশ। ইটের আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন এক পুলিশ সদস্য।

শুক্রবার দিনগত রাত ২টায় এ ঘটনা ঘটে।

রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবির জানান, শুক্রবার রাতে পারুয়া ইউনিয়নের পারুয়া গ্রামে এক আসামীকে গ্রেফতার করতে যান পুলিশ ফোর্স। আসামী পক্ষ পুলিশদের ঘরের ভিতর আটকে রেখে ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার করে এলাকাবাসীদের ক্ষেপিয়ে তোলে। এলাকায় মসজিদের মাইকে ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার করে পুলিশের উপর আক্রমন চালায়। এসময় ইট পাটকেল নিক্ষেপে থানার কনষ্টেবল মো. সেলিম(৩১) গুরুতর আহত হয়। তাকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ইউনিফর্ম পরিহিত পুলিশ সদস্যকে ডাকাত বলে তাদের উপর হামলা করা কোনোভাবে কাম্য নয়।

অভিযুক্ত মো. জসিম জানান, “আমি জামিনে আছি। থানায় রি’কলের কপিও জমা দিয়েছি। কিন্তু পুলিশ গভীর রাতে আমার বাড়িতে গেলে একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে। আমরা কেউ পুলিশের উপর আক্রমন করিনি। স্থানীয় জনতা বুঝতে না পেরে পুলিশকে আঘাত করেছে।

পারুয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদুর রহমান তালুকদার জানান, স্থানীয় মো. জসিমের বাড়িতে রাতের আঁধারে ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে পড়ায় এলাকাবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পড়ে। তবে তারা পুলিশ জানতে পারলে কেউ আক্রমন করতোনা। পুলিশ পারুয়া এলাকায় আসামী ধরতে গিয়ে আমাকে জানালে এ ঘটনা ঘটতনা।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুর ১ টায় অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদের মাসিক সভায় প্রধান উপদেষ্ঠা রাঙ্গুনিয়ার সংসদ সদস্য ড. হাছান মাহমুদ জানান, পারুয়ার ঘটনাটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। দুই পক্ষের ভুলের কারনে এ ঘটনাটি ঘটেছে। ভবিষ্যতে এধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

মতামত