টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গণভবনে বসে খেলা উপভোগ করলেন প্রধানমন্ত্রী

Exif_JPEG_420

চট্টগ্রাম, ৩০  অক্টোবর (সিটিজি টাইমস)::গণভবনে বসে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের ফাইনাল ম্যাচের খেলা দেখলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাঠে উপস্থিত না থাকলেও টিভিতে খেলাটি উপভোগ করেন তিনি। এসময় তার সাথে বেসামারিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় উপস্থিত ছিলেন।পরে এসে যোগ যেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

শুক্রবার চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয় সন্ধ্যা ৭টা ৪০মিনিটে।

স্বাগতিক চট্টগ্রাম আবাহনী ও কলকাতার ফুটবল ক্লাব কিংফিশার ইস্ট বেঙ্গলের মধ্যে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়।

খেলায় ৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিক দল চট্টগ্রাম আবাহনী।

ম্যাচ জয়ী দলকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিন ম্যাচের ১০ মিনিটে গোল করে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ইস্ট বেঙ্গল। কিন্তু বিরতিতে যাওয়ার কিছুক্ষণ আগে ম্যাচের ৪৫ মিনিটে চট্টগ্রাম আবাহনীর এলিটা কিংসলে গোল করে দলকে ১-১ সমতায় ফেরান। বিরতির পর দারুণভাবে জ্বলে উঠে চট্টগ্রাম আবাহনী। ৫৬ মিনিটেও আরেকটি গোল দেন এলিটা। অল্প সময়ের মধ্যে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। শেষ পর্যন্ত দুর্দান্ত খেলে ৩-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রাম আবাহনী।

গ্রুপ পর্বে কলকাতা ইস্ট বেঙ্গলের কাছে ২-১ ব্যবধানে হেরেছিলো চট্টগ্রাম আবাহনী। আজ সেই হারের প্রতিশোধ নিয়ে শিরোপা জয় করে বাংলাদেশের মানুষকে আনন্দে ভাসানোর এটিই বড় সুযোগ চট্টগ্রাম আবাহনীর। সেমিফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনী স্পিন ঘার বাজানকে ৩-১ গোলে ও ঢাকা মোহামেডানকে ৩-০ গোলে হারায় ইস্ট বেঙ্গল।

এই টুর্নামেন্টে মোট আটটি ক্লাব অংশ নেয়। ক্লাবগুলি হলো চট্টগ্রাম আবাহনী, ঢাকা আবাহনী, ঢাকা মোহামেডান, কলকাতার কিংফিশার ইস্টবেঙ্গল ও কলকাতা মোহামেডান, শ্রীলঙ্কার সলিড এফসি, পাকিস্তানের করাচি ইলেক্ট্রিক ও আফগানিস্তানের স্পিন ঘার বাজান।

মতামত