টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রামুর দৃষ্টিনন্দন নিদর্শন দেখে মুগ্ধ হলেন বিদেশীরা

5_1
ইমাম খাইর, কক্সবাজার ব্যুরো:

চট্টগ্রাম, ২৯ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): কক্সবাজারের রামুর দৃষ্টিনন্দন বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শনে মুগ্ধ হলেন বাংলাদেশ সফররত বিভিন্ন দেশের পর্যটন মন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা। ২৯ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে তাঁরা রামু পরিদর্শনে যান।

প্রথমে তাঁরা রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের উত্তর মিঠাছড়ি বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্র ও ভুবনশান্তি ১০০ ফুট গৌতম সিংহশয্যা বুদ্ধমূর্তি পরিদর্শন করেন। এ সময় বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত করুণাশ্রী থের’র নেতৃত্বে অতিথিদের স্বাগত জানানো হয়। এসময় তারা একুশে পদকে ভূষিত, উপ-সংঘরাজ পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন এবং তাঁর আশীর্বাদ গ্রহণ করেন।

পরে সেখান থেকে ঐতিহাসিক তীর্থধাম রামকোট বনাশ্রম বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শনে যান। বিহারে উপস্থিত হলে বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত জ্যোতিসেন থের’র নেতৃতে অতিথিদের বরণ করা হয়।

বিহার পরিদর্শন শেষে সকাল ৯ টার দিকে তাঁরা রামু ত্যাগ করেন। এরপর কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে বিমান বাহিনীর বিশেষ হেলিকপ্টার যোগে তারা ঢাকার উদ্দেশ্যে কক্সবাজার ছাড়েন।

প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন জাতিসংঘের পর্যটন সংস্থা ইউএন-উটিও এর সেক্রেটারী জেনারেল তালিব রিফাইও। বে-সামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ও সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী ছাড়াও প্রতিনিধি দলে ছিলেন চীনের পর্যটন সংস্থার ডাইরেক্টর লাই কোওয়ানগো, কম্বোডিয়ার পর্যটন মন্ত্রী টপ সোফেক, ভারতের পর্যটন সংস্থার রিজিওনাল ডাইরেক্টর শ্রীভেন্ট সঞ্জয়, ভূটানের পর্যটন মন্ত্রী লিয়নপো নরভো ওয়াংচুক, আফগানিস্তানের পর্যটন মন্ত্রী আব্দুল বারী জাহানী, ভিয়েতনামের ডাইরেক্টর জেনারেল তারান দিনহ তানহ, আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত আব্দুর রহিম ওরাজ, নেপালের রাষ্ট্রদূত আমপেমা চোডেন, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান অরূপ চৌধুরী ও ডাইরেক্টর ড. নাছির উদ্দিন, টুরি‌্যষ্ট পুলিশের ডিআইজি সোহরাব হোসেন, ইউএন-উটিও এর ডাইরেক্টর জিং জু, ইউএন-উটিও এর উর্দ্ধতন অফিসার জুনচি জ্যাক কামাডা।

রামুর বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শনকালে তাঁদের সাথে ছিলেন সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি হাসান মাহমুদ, রামু-কক্সবাজার সদর ৩ আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিনা কাজী, রামু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল মজিদ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ২৭ ও ২৮ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘বৌদ্ধ পর্যটন সার্কিট উন্নয়ন’ বিষয়ক দুইদিনের আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশে আসেন। জাতিসংর্ঘের অঙ্গসংস্থা ইউএনডব্লিওটিও এর প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও পর্যটন সংশ্লিষ্টদের মধ্যে ১৭ জনের একটি প্রতিনিধি দল ২৮ অক্টোবর বুধবার বিকাল সোয়া ৫টার দিকে কক্সবাজার ভ্রমনে আসেন।

এরপর তারা সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে প্রায় পৌনে এক ঘন্টার মতো সময় কাটান। সাগরের উত্তাল তরঙ্গমালার খুব কাছাকাছি পর্যটন ছাতা চেয়ারে বসে পশ্চিমাকাশে সূর্যাস্ত ও প্রকৃতির মনোরম দৃশ্য অবলোকন করেন অতিথিরা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত