টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনী

spচট্টগ্রাম, ২৭ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): স্পিন ঘর বাজানকে হারিয়ে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের স্বপ্নের ফাইনালে চট্টগ্রাম আবাহনী।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার প্রথম সেমি-ফাইনালে আফগানিস্তানের ঘরোয়া লিগের চ্যাম্পিয়ন বাজানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়টি ৩-১ ব্যবধানের।

চট্টগ্রাম আবাহনীর এলিটা কিংসলে দুটি, ইকো স্টিভ থমাস একটি করে গোল করেন। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমি-ফাইনালে ওঠা বাজানের একমাত্র গোলদাতা মোহাম্মদ হাশেমী।

নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এলিটা কিংসলের চমৎকার দুটি গোল ছিল চট্টগ্রাম আবাহনীর জয়ের অন্যতম উৎস।

প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে উঠেছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। এবার প্রথম দল হিসেবে ফাইনালেও উঠল তারা।

খেলার ২৪ মিনিটে এগিয়ে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী। বাম প্রান্তে কর্নার পেয়েছিল তারা। জাহিদ হোসেন বল ভাসিয়ে দিলেন হাওয়ায়। বাঁক খেয়ে বল এসে পড়ল বক্সের মাঝামাঝি। অধিনায়ক এমিলি হেড করে তা ফেললেন ক্যামেরুনিয়ান মিডফিল্ডার ইয়োকো সামনিকের সামনে। ঠাণ্ডা মাথায় একজন ডিফেন্ডার ও গোলরক্ষক ইয়াসিন জাফরির মাঝ দিয়ে বল প্লেস করলেন সামনিক। বল জড়িয়ে গেল জালে। সারা স্টেডিয়াম তখন ফেটে পড়েছে গগন বিদারী উল্লাসে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই সমতা আনার জন্য মরিয়া হয়ে খেলে স্পিঙ্গার বাজান। ৪৯ মিনিটে ফরোয়ার্ড মুস্তাফা আফসারের বক্সের উপর থেকে নেওয়া ডান পায়ের জোড়ালো শট ক্রসপোস্টের উপর দিয়ে চলে যায়। চাপ সামলে পাল্টা আক্রমণ শুরু করে চট্টগ্রাম আবাহনী। ৫৫ মিনিটে মিথুন চৌধুরীর লবে গোল পোস্টের খুব কাছ থেকে সাইড ভলি নিতে ব্যর্থ হন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এলিটা কিংসলে। গোল হতে পারতো যদি তিনি বল পায়ে ঠিকমতো রাখতে পারতেন।

তবে পরের মিনিটেই গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ লিটনের দৃঢ়তায় রক্ষা পায় আয়োজকরা। মাঝমাঠ থেকে একাই বল নিয়ে ঢুকে গিয়েছিলেন ফরোয়ার্ড রেজা আল্লা ইয়ারি। তার বাম পায়ের জোড়ালো শট বামদিকে ড্রাইভ দিয়ে রক্ষা করেন গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ।

কিন্তু আফগানদের বুকে দ্বিতীয়বার আঘাত হানেন এলিটা কিংসলে। ৫৯ মিনিটে ইয়োকো সামনিকের নিখুঁত থ্রু পাস ভেদ করে ডি স্পিঙ্গারের ডিফেন্স। এলিটা বল আয়ত্বে নিয়ে বাম পায়ের কোণাকুণি শটে দূরের জালে বল জড়িয়ে দেন।

৭৯ মিনিটে অধিনায়ক গোলাম হাযরাতের ফ্রি-কিকে ডেড করে ব্যবধান কমান বাজানের ডিফেন্ডার সাঈদ মোহাম্মদ হাশেমি। খেলায় ফিরে আসার পথ তৈরি হয় আফগানদের। কিন্তু আশা পূরণ হয়নি তাদের। বরং  খেলা শেষ হওয়ার তিন মিনিট আগে মাঝমাঠ থেকে একাই বল নিয়ে অনন্য নৈপুণ্যে বাম পায়ের কোণাকুণি শটে তৃতীয় গোল করে দলকে ফাইনালে পৌঁছে দেন এলিটা কিংসলে।

ঢাকা মোহামেডান-ইস্ট বেঙ্গল দ্বিতীয় সেমিফাইনাল জয়ী দলের সঙ্গে শুক্রবার ফাইনাল খেলবে চট্টগ্রাম আবাহনী।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত