টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাতকানিয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীকে হত্যার উদ্দেশ্যে জানালা দিয়ে গুলিবর্ষন

আবদুল আউয়াল জনি
লোহাগাড়া-সাতকানিয়া প্রতিনিধি

SAM_1594চট্টগ্রাম, ২৪ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার ৪ নং কাঞ্চনা ইউনিয়ন পরিষদের ২৮শে অক্টোবরের আসন্ন উপ-নির্বাচনে তালগাছ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দীতাকারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মুখলেছ উদ্দিন জাকেরকে হত্যার উদ্দেশ্যে বাড়ির জানালা দিয়ে গুলিবর্ষন করেছে অপর ২ প্রতিদ্বন্দী চেয়ারম্যান প্রার্থীর অজ্ঞাতনামা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা।

২৩শে অক্টোবর শুক্রবার রাতে কেরানীহাট নিউমার্কেটের কেন্ডি রেস্টুরেন্টে এক জনাকীর্ন সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন ৪ নং কাঞ্চনা ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচনে তালগাছ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দীতাকারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মুখলেছ উদ্দিন জাকের। তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন আমি কাঞ্চনা ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগনের, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ ও দক্ষিন জেলা আওয়ামীলীগ এবং স্থানীয় সাংসদ কতৃক মনোনীত প্রার্থী। আমার প্রতি সর্বস্তরের জনগনের ভালবাসার কারণে আমার বিজয় সুনিশ্চিত জেনে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার প্রতিদ্বন্ধী ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা শুক্রবার ভোর আনুমানিক ৩ টার সময় আমার শোবার ঘরের কাঁচের জানালা দিয়ে উপর্যুপরী বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষন করে কিন্তু সৌভাগ্যক্রমে আমি বাড়ির অন্য রুমে থাকায় প্রানে বেঁচে যাই। ঘটনার সাথে সাথে আমি সাতকানিয়া থানার ওসি তদন্ত মাহমুদুল হাই সাহেবকে মোবাইলে জানালে তিনি টহলরত এসআই ইয়াছিন আরাফাতকে ফোর্স সহ ঘটনাস্থলে প্রেরণ করেন, তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তিনি আরো বলেন আমার প্রতিদ্বন্ধী অপর ২ চেয়ারম্যান প্রার্থী এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী নির্বাচন বানচাল করার লক্ষ্যে তারা প্রচুর পরিমানে অবৈধ অস্ত্রের মজুদ সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের এনে সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শন পূর্বক ভোট কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করছে এছাড়াও নারী ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে গেলে ঘরবাড়ী জ্বালিয়ে দেওয়া সহ পরিবারের সদস্যদের প্রানে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করা হচ্ছে ফলে আমার পক্ষে সুষ্ট ভাবে নির্বাচনী প্রচারনা চালানো সম্ভব হচ্ছেনা এবং সাধারণ ভোটারদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে শঙ্কা তাই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় আনার আহবান জানান তিনি।

৯টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে কাঞ্চনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র, দক্ষিন কাঞ্চনা গুরগুরী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও শহীদ কামাল উদ্দিন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রকে ঝুকিপুর্ন মনে করেন তিনি তাই নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠ, শান্তিপুর্ণ করার স্বার্থে এবং প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ম্যাজিষ্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব সহ প্রচুর পরিমানে পুলিশ সদস্য দেওয়ার দাবী জানান নির্বাচন কমিশন ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাঞ্চনা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আবদুল মালেক, আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের সদস্য আনোয়ার হাবিব হেলাল, মহানগর যুবলীগ সদস্য মোহাম্মদ আলমগীর, কাঞ্চনা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি দিদারুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ ছালাম, সাহেব মিয়া, শামশুল ইসলাম সহ অনেকে।

মতামত