টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বোমা হামলা দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ২৪ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): দেশকে অস্থিতিশীল ও আতঙ্ক তৈরি করতেই দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেছেন, ‘তাজিয়া মিছিলে বোমা বিস্ফোরণ সেই ষড়যন্ত্রেরই বাহিঃপ্রকাশ।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে শনিবার দুপুর সোয়া ১২টায় হোসেনী দালানের সামনে বিস্ফোরণে আহতদের দেখতে যান তিনি। সেখান থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের কাছে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘আমাদের নিরাপত্তার কোনো দুর্বলতা ছিল না। আমাদের যথেষ্ট নিরাপত্তা ছিল। তবে কারা, কেন, কিভাবে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে তা খতিয়ে দেখব। আমাদের কাছে যথেষ্ট তথ্য আছে। যারা ঘটিয়েছে তারা সংঘবদ্ধ।’

এ ঘটনায় জঙ্গী সম্পৃক্ততা রয়েছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী এ বিষয়ে সরাসরি উত্তর না দিলেও বলেন, ‘আনসারুল্লাহ, হুজি, জেএমবি, আলকায়েদা, আইএস সব এক জায়গার প্রডাক্ট। আমরা কখনোই তাদের মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে দেইনি। আর কখনও দিবোও না।’

ঘটনাস্থল থেকে দুটি অবিস্ফোরিত বোমা উদ্ধার করা হয়েছে। সেগুলো গ্রেনেড না বোমা এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘যেগুলো উদ্ধার হয়েছে সেগুলো গ্রেনেড বা বোমা নয়। সেগুলো দেশীয় তৈরি। তবে পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।’

এর আগে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘অপরাধীদের ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে। ঘটনাস্থল থেকে ১৬টি সিসি টিভির ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। সেগুলো যাচাই-বাছাই করছি। একটু সময় লাগবে। আশা করছি ভাল কিছু দেখাতে পারব। সবার সামনে তা প্রকাশিত হবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পুলিশের আইজি এ কে এম শহীদুল হক, র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী সেলিম।

শুক্রবার রাত ১টা ৫৫ মিনিটের দিকে আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময় হোসিইনী দালান চত্বরে পরপর তিনটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। ওই ঘটনায় এক কিশোর নিহত হন। আহত হন শতাধিক। তাদের ঢাকা মেডিকেল ও মিটফোর্ড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

মতামত