টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সোনাদিয়া চ্যানেলে ফিশিংবোটসহ চালক অপহরণ, মুক্তিপণ দাবী

ইমাম খাইর, কক্সবাজার ব্যুরো
বঙ্গোপসাগরের সোনাদিয়া চ্যানেল থেকে অস্ত্রের মুখে ‘এফবি ভাই ভাই ফিশিং’ নামে একটি মাছধরার ট্রলারসহ চালক অপহরণ করে নিয়ে গেছে জলদস্যুরা। পরে মুঠোফোনে বোট মালিকের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করা হয়। ২০ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে অপরণের ঘটনাটি ঘটে।
অপহৃত ফিশিংবোটের মালিক কক্সবাজার শহরের পেশকার ফজল করিম কোম্পানি।
এ সংবাদ নিশ্চিত করেছেন জেলা ফিশিংবোট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহামদ।
তিনি জানান, বঙ্গোপসাগরের সোনাদিয়া চ্যানেলের অদূরে মাছধরারত অবস্থায় অস্ত্রের মুখে এফবি ভাই ভাইকে জিম্মি করে ফেলে জলদস্যুরা। এসময় বোটের মাঝিসহ ১৭ জেলেকে মহেশখালীর একটি বোটে তুলে দিয়ে চালকসহ বোটটি নিয়ে যায় জলদস্যরা। ১৭ জেলে ফেরার পথে আছে।
মাঝির বরাত দিয়ে এফবি ভাই ভাই এর মালিক ফজল করিম কোম্পানি জানান, বোটটি অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার সময় দুস্যরা জানায়, চালক ও বোট ফেরত পেতে হলে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে।
জেলা বোট মালিক সমিতির সভাপতি মুজিবুর রহমান জানান, ইলিশ প্রজনন মৌসুম শেষ হওয়ার সব বোট মাছ ধরতে সাগরে চলে যায়। দীর্ঘ ১৫ দিন পর মাছ ধরা হওয়ায় প্রচুর মাছ ধরা পড়ছে। এরই মধ্যে যেসব বোট মাছ নিয়ে ফিরেছে তারা ১ থেকে ৫ লাখ পর্যন্ত পেয়েছে। এ খবর পেয়ে বাঁশখালী, কুতুবদিয়া, হাটখালী, চকরিয়াসহ বিভিন্ন এলাকার জলদস্যুরা সোনাদিয়া জড়ো হয়েছে। তারা সোনাদিয়ার জলদস্যু স¤্রাট নাগু মেম্বারের পুত্র নকিব বাহিনী, ভাতিজা জাম্বু বাহিনী ও সরওয়ার বতইল্যা বাহিনীর আশ্রয়ে সেখানে অবস্থান করে। বর্তমানে মাছ ধরে ফিরে আসা বোটগুলোকে টার্গেট করে ডাকাতি ও অপহরণ চালাচ্ছে দস্যুরা।
এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিক যোগাযোগ করা হলে মুঠোফোনের কল না ধরার কক্সবাজার কোস্টগার্ড স্টেশনের পিটি অফিসার নান্নু মিয়ার বক্তব্য জানা যায়নি।

মতামত